চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৩৫ হাজার কোটি ডলারের বিবাহ বিচ্ছেদ!

বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেভ বেজোস ও তার স্ত্রী ম্যাকেনজি বেজোসের ৩৫ হাজার কোটি ডলার সমামানের দেনমোহর ও সম্পত্তির অর্ধেক হিসেবে বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন হয়েছে। তাদের এই বিবাহ বিচ্ছেদ হতে যাচ্ছে বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি বিবাহ বিচ্ছেদ।  

আলোচিত এ বিচ্ছেদে ভাগ্য খুলে যাচ্ছে ম্যাকেনজির। জেফ বেজোসের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর বিশ্বের শীর্ষ ধনী নারীতে পরিণত হবেন ম্যাকেনজি বেজোস। দীর্ঘ ২৫ বছরের সংসারে তাদের চার সন্তান রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তবে এ বিবাহ বিচ্ছেদে ম্যাকেনজি একটা টুইট করেছেন, ‘ভালোমতোই আমাদের বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন হয়েছে। বিচ্ছেদ হলেও জেভ বেজোসকে আমি সহযোগীতা করব এবং পরবর্তীতে কো-পার্টনার এবং বন্ধুর মতো সম্পর্ক থাকবে।

মার্কিন আদালতের আইন অনুযায়ী, আমাজনের মালিক জেফ বেজোসের মোট সম্পত্তির অর্ধেকটাই দিয়ে দিতে হবে ম্যাকানজিকে।

বিজ্ঞাপন

কেননা ওয়াশিংটনের নিয়ম অনুযায়ী, বিবাহিত সম্পর্কে থাকা অবস্থায় কোনো দম্পতি যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন করে তার ওপর স্বামী এবং স্ত্রীর দুজনেরই অধিকার রয়েছে।

সে প্রেক্ষিতে গত ২৫ বছরে যে পরিমাণ সম্পত্তি অর্জন করেছেন জেফ ও ম্যাকানজি তার অর্ধেক পাবেন সদ্য সাবেক স্ত্রী হওয়া ম্যাকেনজি। পাশাপাশি তাদের ওয়াশিংটনের বিলাশবহুল বাড়িটিও যৌথ সম্পত্তি হিসেবে নথিভূক্ত হবে।

১৯৯৩ সালে বিয়ে করেছিলেন ম্যাকানজি-বেজস। এর এক বছর পরেই বেজস অ্যামাজন প্রতিষ্ঠা করেন। তখন থেকেই কোম্পানিটি বিশ্বের সেরা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান হয়ে ওঠে। ২০১৭ সালে পৃথিবীর ধনীতম ব্যক্তি হয়েছিলেন জেফ।

ফলে বিচ্ছেদের পর এ বিপুল সম্পত্তির অর্ধেক ম্যাকানজিকে দেওয়া হলে শীর্ষ ধনীর মুকুট হারাবেন বেজস। আবার পৃথিবীর ধনীতম ব্যক্তি হয়ে যাবেন মাইক্রোসফট প্রধান বিল গেটস।

অন্য দিকে মার্ক জাকারবার্গ এবং টেসলা প্রধান এলন মাস্ককে পেছনে ফেলে ধনী তালিকায় অবস্থান নিবেন বিশ্বের শীর্ষ নারী ধনী ম্যাকানজি।