চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পুলিশি হেফাজতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভাওয়াল গাজীপুর এলাকায় পুলিশি হেফাজতে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ করেছেন স্বজনরা। পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তারের পর অসুস্থতাজনিত কারণে ওই গৃহবধূ মারা গেছেন।

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

গাজীপুরের ভাওয়াল গাজীপুর এলাকার বাসিন্দা আব্দুল হাইকে মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ডিবি পুলিশের সহকারি উপ-পরিদর্শক নুরে আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় আব্দুল হাইকে না পেয়ে তার স্ত্রী ইয়াসমিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

স্বজনরা জানায়: গ্রেপ্তারের পর ইয়াসমিনকে ব্যাপক মারধর করা হয়। মারধরের পর অসুস্থ হয়ে গেলে তাকে শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এসময় স্বজনরা তার সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তাদেরকে দেখা করতে দেয়নি পুলিশ। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে স্বজনদেরকে তার মৃত্যুর খবর জানানো হয়।

গাজীপুর মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার মো. মনজুর রহমান জানান: ওই গৃহবধূকে গ্রেপ্তারের কিছু সময় পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে তিনি মারা যান।

হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ইয়াসমিনকে ভর্তি করার পর তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। হার্ট অ্যাটাকে তিনি মারা গেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। নিহতের শরীরে বাহ্যিকভাবে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

বিজ্ঞাপন