চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পুলিশকে ধোঁকা দিলো ম্যানিকিন

নিউইয়র্ক পুলিশকে ধোঁকা দিলো এক নারী। তবে সেটা সত্যিকারের কোনো নারী নয় বরং একটি ম্যানিকিন। বরফে জমে যাওয়া সেই ম্যানিকিন নারীকে উদ্ধারে পার্ক করা একটি গাড়িও ভেঙে ফেলে পুলিশ।

ম্যানিকিন হলো পোশাক প্রদর্শনের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত মোম বা কাঠের মূর্তি যেগুলো দোকানে রাখা হয়।

অবশ্য পুলিশের দাবি, তারা সঠিক কাজটিই করেছে। শুক্রবার সকালে অপরিচিত নাম্বার থেকে একটি কল আসে পুলিশের কাছে। কলার বলেন, হাডসন শহরে এক নারী পার্ক করা গাড়িতে ঠান্ডায় জমে প্রায় মরতে বসেছেন।

দ্রুতই ছুটে আসেন কর্মকর্তারা। দেখেন একটি গাড়িতে যাত্রীর সিটে সিটবেল্ট ও অক্সিজেন মাস্ক পড়ে বসে আছে এক নারী। তার শরীরেও যেন কোনো নড়াচড়া নেই। দেখা মাত্রই অ্যাকশন। গাড়ি ভেঙে উদ্ধারের পর দেখা যায় সেটি একটি ম্যানিকিন।

বিজ্ঞাপন

তবে ম্যানিকিনের মালিকের দাবি, তিনি এটিকে মেডিকেল ট্রেনিংয়ের উপাদান হিসেবে ব্যবহার করছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, গাড়িটি পুরো বরফে ঢাকা ছিলো। সারারাত অন্তত -১৩ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় গাড়িটি পড়ে ছিলো। ম্যানিকিনটিও দেখতে পুরোই মানুষের মতো ছিলো। সত্যিকারের কাপড়, চশমা, জুতা, দাঁত ও ত্বকের উজ্জ্বলতা দেখে সেটাকে আরো বাস্তব মনে হচ্ছিলো।

এই ঘটনার পর পুলিশের অ্যাকশন নিয়ে অভিযোগ করে বসেন ম্যানিকিনটির মালিক।

জবাবে পুলিশ প্রধান এল এডওয়ার্ড মোরে বলেন, আমি মনে করি, আমাদের যেটা করা উচিত ছিলো সেটাই আমরা করেছি। কিন্তু ম্যানিকিনের মালিক আমাদের সার্জেন্টের সঙ্গে বেশ উচ্চস্বরে কথা বলেন এবং খারাপ ব্যবহার করেন। তবে আমি সব ম্যানিকিনের মালিকদের বলতে চাই, সঙ্গে হাডসনের সব নাগরিকদের বলতে চাই, আপনি যদি এমন এক তাপমাত্রায় বদ্ধ গাড়ির ভেতরে একেবারে মানুষ আকৃতির একজন ম্যানিকিন বসিয়ে রাখেন, তাহলে আপনার গাড়ির কাঁচ আমরা ভাঙবোই।

শেয়ার করুন: