চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পিপলস লিজিংয়ের ১২২ ঋণ খেলাপির দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে পাঁচ লাখ কিংবা তার বেশি টাকার ঋণ খেলাপি ১২২ ব্যক্তির দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে হাইকোর্ট।

আদালতের আদেশ অনুযায়ী নির্ধারিত তারিখে হাজির না হওয়ায় বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চের দেয়া এই আদেশ সোমবার প্রকাশ করা হয়। আদালত তার আদেশে এই ১২২ ব্যক্তির বর্তমান ঠিকানা সরবরাহ করতে পিপলস লিজিংয়ের প্রবেশনাল লিক্যুডেটর মো. আসাদুজ্জামানকে নির্দেশ দিয়েছেন।পাশাপাশি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং রাষ্ট্রকে এবিষয়ে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা দিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এর আগে আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে ৫ লক্ষ বা তার বেশি টাকা নেয়া ঋণ খেলাপি ২৮৬ জনকে তলব করে গত গত ২১ জানুয়ারি আদেশ দেন হাইকোর্ট। তাদের পর্যায়ক্রমে আদালতে হাজির হয়ে খেলাপি ঋণের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। সে অনুযায়ী ঋণ খেলাপি ১৬৪ জন ব্যক্তি হাইকোর্টে হাজির হন। অন্যরা হাজির না হওয়ায় আজ হাইকোর্ট তাদের দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিলেন।

ধারাবাহিক লোকসানে থাকা শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং ২০১৪ সালের পর থেকে আমানতকারীদের কোনো লভ্যাংশ দিতে পারেনি। এরপর ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই থেকে দেশের পুঁজিবাজারে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন বন্ধ হয়। এক পর্যায়ে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা বোর্ড ভেঙে নতুন বোর্ড গঠন করে পর্যবেক্ষক নিয়োগ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এতেও প্রতিষ্ঠানটির সার্বিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় গত বছরের জুলাই মাসে প্রতিষ্ঠানটি অবসায়নের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এমন দৈন্যদশায় পড়া এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকের আমানতের টাকা ফেরত দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। এক পর্যায়ে পিপলস লিজিংয়ের ভুক্তভোগী কয়েক আমানতকারীরা টাকা ফেরত পেতে হাইকোর্টেও আকুতি জানায়।

বিজ্ঞাপন