চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পিছিয়ে থেকেও যেখানে এগিয়ে খুলনা

বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপে জয়কে অভ্যাসে পরিণত করা দল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম। দুই ওপেনার লিটন দাস ও সৌম্য সরকার আছেন ফর্মের তুঙ্গে। শেষ ম্যাচেও জোড়া ফিফটি হাঁকিয়েছেন তারা। মোস্তাফিজুর রহমান ও শরিফুল ইসলাম বল হাতে করছেন দুর্দান্ত।

দলীয় ভারসাম্যে অন্য সবার চেয়ে এগিয়ে। ৮ ম্যাচে ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান চট্টগ্রামের। এমন দলের বিপক্ষে আসরের প্রথম কোয়ালিফায়ারে লড়বে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা দল জেমকন খুলনা।

বিজ্ঞাপন

যারা জিতবে তারা সরাসরি উঠে যাবে ফাইনালে। হারলেও সুযোগ থাকবে এলিমিনেটর (বেক্সিমকো ঢাকা-ফরচুন বরিশাল) ম্যাচের জয়ী দলের সঙ্গে লড়াইয়ে (দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার) জিতে ফাইনালে ওঠার।

লিগপর্বে মুখোমুখি দেখায় দুবারই চট্টগ্রামের কাছে হেরেছিল খুলনা। শক্তিশালী দল হিসেবে সবার সমীহ পাচ্ছে মোহাম্মদ মিঠুনের দল। কিছু দিকে পিছিয়ে থাকলেও একটি জায়গায় খুলনা এগিয়ে। সেটি অভিজ্ঞতায়। সাকিব-মাহমুদউল্লাহ-মাশরাফীদের মতো অভিজ্ঞরা আছেন খুলনায়।

বিজ্ঞাপন

খুলনার ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস চট্টগ্রামকে সমীহ করলেও নিজেদের সম্ভাবনা দেখছেন। লিগপর্বে শেষ দুটি ম্যাচে হারের হতাশা কাটিয়ে প্লে-অফে ভালোভাবে মেলে ধরতে পারবে বলেই বিশ্বাস তার।

‘মানসিকভাবে সবাই ‍খুব ভালো অবস্থায় আছে। সেমিফাইনাল খেলছি, আমরা দুই নম্বর দল হয়েছি, আমাদের এখানে সুযোগ দুইটা থাকবে। হ্যাঁ, চট্টগ্রাম আমাদের দুবার হারিয়েছে। অবশ্যই তারা আমাদের থেকে ভালো ক্রিকেট খেলেছে। কিন্তু আমাদের যে ভুলগুলা করেছি আমরা, শেষ দুইটা ম্যাচে ওদের সঙ্গে ওইগুলো নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে এবং আজকেও অনেক আলোচনা হবে। মনে হয় ওই জায়গাগুলোতে যদি আমরা ভুল না করি, আবার ভালোভাবে কামব্যাক করতে পারব।’

‘আমাদের দলে যে খেলোয়াড়গুলো আছে, তারা জানেন সাকিব বিশ্বের সব ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটই খেলে। ওর যে অভিজ্ঞতা, মনে হয় এটা এই টুর্নামেন্টে খুব কম খেলোয়াড়েরই আছে। ওইদিক থেকে বলব অবশ্যই এগিয়ে আছি আমরা। হয়তো সঠিকভাবে বুঝে উঠতে পারছি না, পারফরম্যান্সটা সঠিক সময়ে ক্লিক করতে পারছি না। আশাবাদী যে, পরবর্তী ম্যাচে ওভারকাম করব।’

‘প্রত্যাশা দল অনুযায়ী তো প্রথম থেকেই আছে, যে আমরা ফাইনাল খেলব বা চ্যাম্পিয়নশিপের, সবারই ইচ্ছা আছে। হ্যাঁ, প্রত্যাশা থাকেই সবার এরকম, একটা দল বানিয়ে যদি ভালো না খেলতে পারি, মনে করি সবদিক দিয়ে আমরা দল অনুযায়ী খেলতে পারি নাই। এখন টি-টুয়েন্টি যদি একটা ম্যাচে ভালো খেলেন, যেকোনো সময় অনেককিছু পরিবর্তন হয়ে যায়। বড় খেলোয়াড়েরা সেমিফাইনাল বা বড় বড় ইভেন্টে বড় বড় ম্যাচে ভালো খেলে।’

সোমবার মিরপুরে দুপুর সাড়ে ১২টায় এলিমিনেটর ম্যাচে ঢাকার বিপক্ষে লড়বে বরিশাল। বিকেল সাড়ে ৫টায় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে মুখোমুখি হবে চট্টগ্রাম-খুলনা।