চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পিকে হালদার ভারতে গ্রেপ্তার

কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠার পর বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে যাওয়া এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার (পিকে) হালদার ভারতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম দাবি করেছে।

শনিবার ভারতের একটি গোয়েন্দা সংস্থার বরাতে বাংলাদেশেও একাধিক গণমাধ্যম পিকে হালদারকে গ্রেপ্তারের খবর প্রকাশ করে।

Reneta June

এই খবর প্রকাশের পর চ্যানেল আই অনলাইন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খুরশিদ আলম খানের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, পিকে হালদার গ্রেপ্তার হয়ে থাকলে তাকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আজ শনিবার জানায়, বাংলাদেশের তিন নাগরিক পি কে হালদার, প্রীতিশ কুমার হালদার ও প্রাণেশ কুমার হালদার এবং তাদের সহযোগীদের নামে থাকা সম্পত্তিতে অভিযান চলানোর কথা নিশ্চিত করে।

পশ্চিমবঙ্গসহ অন্তত ১০টি জায়গায় চালানো ওই অভিযানে পি কে হালদারকে গ্রেপ্তার করা হয়। ইডি’র দাবি, তিনি নিজেকে শিবশংকর হালদার পরিচয় দিয়ে ভারতে অবস্থান করছিলেন।

পিকে হালদার জালিয়াতির মাধ্যমে দেশের কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে নামে-বেনামে কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ উঠে। এতে ওই প্রতিষ্ঠানগুলো দেউলিয়া হতে বসে এবং গ্রাহকের আমানতের টাকা ফেরত দিতে অপারগতা প্রকাশ করে।

এসব অভিযোগের মধ্যেই পিকে হালদার গোপনে দেশ ছাড়েন। এক পর্যায়ে পিকের বিষয়ে স্বপ্রণোদিত হয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। পিকে হালদারকে দেশে ফিরিয়ে আনা ও তার গ্রেপ্তারে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা জানতে চান উচ্চ আদালত।

গত বছরের ৮ জানুয়ারি পিকে হালদারকে গ্রেপ্তারে রেড অ্যালার্ট জারি করে ইন্টারপোল।