চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পার্টিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত বেলজিয়ামের প্রিন্স

স্পেনে করোনাভাইরাস ঠেকাতে লকডাউন চলাকালীন সময়ে এক পার্টিতে যোগ দিয়ে করোনা ডিজিজ বা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন বেলজিয়ামের প্রিন্স জোয়াচিম। তিনি বেলজিয়ামের রাজা ফিলিপের ভাতিজা।

২৮ বছরের প্রিন্স জোয়াচিম গত ২৬ মে ইন্টার্নশিপের জন্য বেলজিয়াম থেকে স্পেন গিয়েছিলেন। তার দুই দিন পরে তিনি সাউথ স্পেনের কর্ডোবা শহরে একটি পার্টিতে যোগ দেন। এরপরই তার শরীরে কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে। ওই পার্টিতে অংশ নিয়েছিলেন ২৭ জন।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্পেনের কর্ডোবার লকডাউন নিয়মের অনুযায়ী, ১৫ জনের বেশি লোকের সমাগম হওয়া বা পার্টি করার অনুমতি নেই। তবে তারপরও এমন পার্টির আয়োজন করা হয়েছে বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে স্প্যানিশ পুলিশ। লকডাউন বিধি-নিষেধ লঙ্ঘণের প্রমাণ পেলে তাদের ১০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হতে পারে।

তবে এই পার্টিতে যারাই অংশগ্রহণ করেছেন প্রত্যেকে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। এদের মধ্যে করোনার হালকা উপসর্গ পাওয়া গেছে প্রিন্স জোয়াচিমের।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে কর্ডোবায় স্পেন সরকারের প্রতিনিধি রাফায়েলা ভ্যালেনজুয়েলা এই পার্টি করার জন্য নিন্দা জানিয়েছেন এবং উপস্থিত সবাইকে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে অভিহিত করেছেন।

তিনি বলেন, আমি অবাক এবং ক্ষোভ প্রকাশ করছি। করোনা মহামারির মধ্যে জাতি যখন শোকের মধ্যে রয়েছে, তখন এই ধরনের ঘটনা ঘটলো।

লকডাউনের মধ্যে পার্টির আয়োজনের নিউজটি প্রথমে প্রকাশ করে স্প্যানিশ একটি পত্রিকা। তবে সেখানে প্রিন্স জোয়াচিমের নামটি দেয়া হয়নি। বেলজিয়াম রাজপ্রসাদ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে যে, প্রিন্স জোয়াচিম করোনায় আক্রান্ত।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর দিক দিয়ে বিশ্বে স্পেনের অবস্থান ষষ্ঠ। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, শনিবার পর্যন্ত  স্পেনে ২ লাখ ৩৯ হাজার ২২৮ জন করোনায় সংক্রমিত এবং ২৭ হাজার ১২৫ জন মারা গেছেন।

শেয়ার করুন: