চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পাকিস্তান সীমান্তে জঙ্গি শিবিরে ভারতের হামলা

পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের জঙ্গি শিবিরে হামলা দিয়ে চারটি জঙ্গি শিবির ধ্বংস করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ওই হামলায় চার থেকে পাঁচ জন জঙ্গি নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে আরো অনেকে।

রোববার কাশ্মীরের নীলম উপত্যকার কুপওয়াড়ার তংধর সেক্টরের বিপরীতে চারটি জঙ্গি শিবিরে এ হামলা চালানো হয়।ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এনডিটিভি একটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, রোববার মধ্যরাতে তংধরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত হন দুই ভারতীয় সেনা এবং একজন সাধারণ নাগরিক। ওই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। ওই ঘটনার জবাবেই ভারতীয় সেনাবাহিনী এই আক্রমণ চালানো হয়েছে।

জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর উদ্দেশ্য ওই জঙ্গি শিবিরগুলি থেকে ভারতে জঙ্গি অনুপ্রবেশ করানো হত।গত আগস্টে জম্মু ও কাশ্মীরের ‘স্পেশাল স্ট্যাটাস’ তুলে নেওয়ার পর থেকেই এই প্রচেষ্টা চা‌লিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক সূত্রের বরাতে বলা হয়েছে, পাকিস্তান সেনাবাহিনী সীমান্ত পেরিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে সহায়তা অব্যাহত রাখার প্রতিবাদে ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রতিক্রিয়া জানানোর সময় ও স্থান নির্বাচন করার অধিকার রাখে। এবং এই হামলা পাকিস্তান সেনাবাহিনীর জন্য শক্ত বার্তা।

পাকিস্তান আন্তর্জাতিক ফোরামে কাশ্মীরে পতাকা প্রদর্শনের জন্য বারবার চেষ্টা করে আসছে, তবে এখনও পর্যন্ত তাদের প্রচেষ্টা সফল হয়নি।

গত সেপ্টেম্বরে পাঞ্জাবে পাকিস্তানের প্রায় ৮টি ড্রোন প্রতিহত করার কথা জানিয়েছিল ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।ড্রোনগুলো প্রায় ১০ কেজির মত ভারী ছিল। ধারণা করা হয় ড্রোনে বিস্ফোরক, অস্ত্র ও যোগাযোগ স্থাপনের জন্য স্যাটেলাইট ফোন ছিল।ওই ড্রোন পাঠানোর জন্য পাকিস্তানের রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের দায়ী করে  ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

ভারতের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পাকিস্তান ২,০৫০ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে। এর ফলে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Bellow Post-Green View