চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পশ্চিমবঙ্গের সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় ১০ জুন পর্যন্ত বন্ধ

করোনা সংক্রমণের শঙ্কা এড়াতে আগামী ১০ জুন পর্যন্ত ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বন্ধ থাকবে সমস্ত সরকারি, সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এছাড়াও বন্ধ থাকবে সব বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানগুলোও।

নভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ায় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে ওই সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। রাজ্যের সমস্ত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ও যে ১০ জুন পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এই মর্মে একটি সরকারি বিজ্ঞপ্তি সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিভাগ যেমন উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, অর্থ / পরীক্ষা বিভাগ, ইনস্টিটিউট প্রধানের দফতর খোলা রাখা যেতে পারে ২০ এপ্রিল থেকে। তবে তার জন্যে উপযুক্ত সুরক্ষা পরিকাঠামোর ব্যবস্থা করতে হবে, জানিয়েছে রাজ্য সরকার।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পাশাপাশি বিদ্যুৎ, পরিচ্ছন্নতা সাফাই বিভাগ, পানি সরবরাহ, সুরক্ষা ইত্যাদির মতো জরুরি পরিষেবাও চালু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে লকডাউনের বিধিগুলোর মধ্যে।

রাজ্য সরকার জানিয়েছে, রাজ্যের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলগুলিও ২০২০ সালের ১০ জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তবে বিদেশি পড়ুয়া যারা দূরত্বের কারণে বা অন্য কোনও কারণে ক্যাম্পাস ছেড়ে যেতে পারছেন না, তাদের জন্যে মেডিকেল প্রোটোকল অনুযায়ী পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করে রাখার ব্যবস্থা করতে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোনও প্রতিষ্ঠানের প্রধানের অনুমোদন ছাড়া হস্টেলগুলোতে থাকতে দেওয়া হবে না।

ভারতের সরকার লকডাউনের সময়কাল আপাতত ৩ মে পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা করেছে, তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি কবে থেকে সম্পূর্ণ কার্যক্রম শুরু করবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে।

দেশের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ফলে লক্ষ লক্ষ পড়ুয়ার পড়াশোনা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং নতুন ক্লাস শুরুর বিষয়টিও পিছিয়ে যাচ্ছে। যদিও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনলাইনে ক্লাস নিয়ে পড়াশোনার ক্ষেত্রে কিছুটা ক্ষতিপূরণ করার চেষ্টা করছে, কিন্তু যেসব পড়ুয়াদের বাড়িতে ইন্টারনেট নেই তারা এই ক্লাস করতে পারছে না।