চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পরিবার একেবারেই চাচ্ছে না আর ফিল্ম করি: বাপ্পী

ফেসবুক ব্যবহারীদের মন্তব্যে নানাভাবে বুলিংয়ের শিকার হন নায়ক বাপ্পী চৌধুরী। সেই সব মন্তব্য নজরে এসেছে বাপ্পীর পরিবারের সদস্যদের। এ কারণে পরিবার চাইছে না, তাদের সন্তান বাপ্পী আর সিনেমাতে করুক। পরিবারের চাওয়া, বাপ্পী পারিবারিক এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যবসায় মনোযোগ দিক।

বাপ্পী নিজেও বুলিংয়ের শিকার হয়ে অনেক সময় ডিপ্রেশনে পড়েন উল্লেখ করে বলেন, ‘পরিবার থেকে একেবারেই চাচ্ছে না আমি আর ফিল্মে কাজ করি। কারণ, ফিল্ম হচ্ছে ডিপ্রেশনের জায়গা।’ তবে ‘সুলতানা বিবিয়ানা’ খ্যাত এই নায়ক মনে করেন, ফিল্ম নেশার মতো। যে নেশায় দিনরাত এক হয়ে যায়।

Reneta June

বাপ্পী বলেন, আমি নিজেও ফিল্ম নিয়ে অনেক বেশী চিন্তা করি। ভাবতে ভাবতে পাগল হয়ে যাই! অনেকসময় রাতে ঘুম হয়না।

বিজ্ঞাপন

বাপ্পী বলেন, আমার বাবা ভাই ব্যবসায় যুক্ত। আমি ছাড়া পরিবারের কেউ ফিল্মে জড়িত নয়। এজন্য পরিবার থেকে চায় না আমি ফিল্মে কাজ করি। তাছাড়া আমাকে নিয়ে বিভিন্ন গসিপ ও আজেবাজে খবর প্রচার হয়। ফেসবুকে আজেবাজে মন্তব্য আসে।

তিনি বলেন, আমার বাবা ভাই বোন যখন সেসব দেখে তারা তখন বলেন ফিল্ম জায়গাটা তোর জন্য না। এজন্য যতটুকু কাজ করেছি বাবা মায়ের অবাধ্যে করেছি। ফিল্মে কাজ করি ভালোবাসার জায়গা থেকে। দেশের প্রথম ডিজিটাল সিনেমার হিরো আমি। এটা যেমন স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে তেমনি আমার কাজগুলো স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। সেই শখে কাজ করে যাচ্ছি।

৩০টির বেশী সিনেমা মুক্তি পেয়েছে বাপ্পী চৌধুরীর। মুক্তির অপেক্ষায় আছে আরও কয়েকটি সিনেমা। নতুন বছরের চাওয়া প্রসঙ্গে বাপ্পী বলেন, আমার সিনেমাগুলো একে একে সিনেমা হলে মুক্তি পেলে আমি খুশী। দর্শকরা উপভোগ করলে আমার পরিশ্রম স্বার্থক হবে। তাদের কারণে আমি এতদূর এসেছি। আজ পর্যন্ত আমি কোনো পলিটিক্স করিনি। কোনো মারপ্যাঁচ বুঝিও না।

পরিষ্কার ভাবে বাপ্পী বলেন, নতুন বছরে যদি ভালো ভালো সিনেমা পাই তাহলে করবো নইলে বাবার ব্যবসা দেখাশোনা করবো।