চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পদ্মা সেতু নির্মাণে দক্ষিণাঞ্চলে আধুনিক জীবনের ছোঁয়া

পদ্মা সেতু নির্মাণে ভাগ্য বদলেছে দক্ষিণাঞ্চলের অনেকের। কিছুদিন আগেও কৃষি ছিলো যাদের একমাত্র নির্ভরতা তারা এখন ব্যবসায়ী। আধুনিক জীবনের ছোঁয়া এখন আর তাদের স্বপ্ন নয়, এখন তা বাস্তবতা। ভেতরে ঢুকলে মনে হবে রাজধানীর কোনো আবাসিক এলাকা। তবে এটা পদ্মা পাড়ের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের একটি পুনর্বাসন প্রকল্প।

রমিজ উদ্দিন কিছুদিন আগেও কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। পদ্মা সেতু প্রকল্পে নিজের ১০ শতাংশ জমি গেছে তার। এর বিনিময়ে তিনি পেয়েছেন নগদ ৭ লাখ টাকা। কুমারভোগ পুনর্বাসন প্রকল্পে পেয়েছেন ৭ শতাংশের একটি প্লট। দোতলা বিল্ডিং করে বাসা ভাড়াও দিচ্ছেন এখন।

রমিজ উদ্দিন বলেন, পদ্মা সেতুতে যারা কাজ করে তারা আইসা খালি বাসা খোঁজে।

Advertisement

স্থানীয় কয়েকজন জানান, এই প্রজেক্টে স্কুল হয়েছে, বাজার হয়েছে, হাসপাতাল হয়েছে। এই রাস্তা আগে কাঁদা ছিলো, পানি ছিলো, নৌকা লাগতো। এখন লাগে না। আমরা আগে গ্রামাঞ্চলে থাকতাম। এখনতো দেখা গেছে শহরের মতো পথ-ঘাট সবকিছুই হইছে।

কিছুদিন আগেও কৃষিকে ঘিরেই যাদের জীবন চলতো, পদ্মা সেতুতে জমি দিয়ে তারা যে টাকা পেয়েছেন তা দিয়ে এখন পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী। পরিবহন ব্যবসা, স্বর্ণালঙ্কারের ব্যবসা থেকে শুরু করে সব ধরণেই ব্যবসাই করছেন তারা। ব্যাংকে টাকাও জমাচ্ছেন।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের জন্য পদ্মাপাড়ের সহস্রাধিক মানুষের কাছ থেকে প্রায় ১১শ হেক্টর জমি অধিগ্রহণ করে সরকার।

ক্ষতিগ্রস্ত এসব মানুষের জন্য সরকারের করে দেওয়া পুনর্বাসন কেন্দ্রগুলোতে রয়েছে পাকা সড়ক, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, ড্রেনেজ, স্কুল, মার্কেট থেকে শুরু করে সব ধরণের আধুনিক ব্যবস্থা। বিরূপ প্রকৃতির কারণে ফসলের ক্ষতি হলেও এখন তেমনটা ভাবেননা পরিবর্তনের সাক্ষী হয়ে যাওয়া এ মানুষগুলো।