চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘নেত্রী দ্য লিডার নয়, অনন্তর সঙ্গে অন্য ছবির পরিকল্পনা করছি’

অনন্ত জলিলের ‘নেত্রী দ্য লিডার’ ছবিটি পরিচালনা করবেন তেলেগু নির্মাতা উপেন্দ্র মাধব…

২০১০ সালে ইফতেখার চৌধুরীর ‘খোঁজ: দ্য সার্চ’ সিনেমার মধ্য দিয়ে সিনেমায় পা রাখেন চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল ও চিত্রনায়িকা বর্ষা। কিন্তু এই সিনেমাটির মুক্তির পর এ পরিচালকের সঙ্গে তারকা দম্পতিকে আর কখনো অভিনয় করতে দেখা যায়নি। প্রায় দশ বছর পর আবারও একসঙ্গে তাদের কাজের সম্ভাবনা তৈরী হয়।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে ইফতেখার চৌধুরীর ‘মুক্তি’ সিনেমার মহরত অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে প্রযোজক, অভিনেতা অনন্ত জলিল তার নতুন সিনেমা ‘নেত্রী দ্য লিডার’ এর ঘোষণা দেন। সেই সময় তিনি জানান, দশ বছর পর আবার ইফতেখার চৌধুরীর সঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

গত কয়েকদিন ধরে ‘নেত্রী দ্য লিডার’ ছবির কাস্টিংয়ে বেশ চমক দেখান অনন্ত। এরইমধ্যে চূড়ান্ত হয়েছে দক্ষিণ ভারতের তিন শক্তিশালী অভিনেতা কবির দুহান সিং, রবি কিষাণ এবং প্রদীপ রাওয়াত।

কাজল আগারওয়াল ও কল্যাণ রামকে নিয়ে ২০১৮ সালে ‘এমএলএ’ নির্মাণ করেন উপেন্দ্র

সব যখন ঠিকঠাক, তখন জানা গেল এই ছবির পরিচালনায় থাকছেন না ইফতেখার চৌধুরী। বরং ‘নেত্রী দ্য লিডার’ এর পরিচালক হিসেবে সামনে এলো ভারতীয় তেলেগু ছবির নির্মাতা উপেন্দ্র মাধবের নাম। যিনি কিনা ২০১৮ সালে কাজল আগারওয়াল ও নন্দমুরি কল্যাণ রামকে নিয়ে নির্মাণ করেছেন ‘এমএলএ’ নামে পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি। খবরটি নিশ্চিত করেছে অনন্ত জলিলের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান মুনসুন ফিল্মস।

বিজ্ঞাপন

কেন ‘নেত্রী দ্য লিডার’ সিনেমাটি পরিচালনায় নেই ইফতেখার চৌধুরী? জানতে যোগাযোগ করা হয় অগ্নি খ্যাত এই নির্মাতার সঙ্গে। চ্যানেল আই অনলাইনকে এই নির্মাতা জানান, বর্তমানে আমি ‘মুক্তি’ সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত আছি। এই ছবিটির ৬০ শতাংশ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। শিগগির বাকি অংশ শুট করবো। এরপর আমার ‘লন্ডন লাভ’ নামে সিনেমার জন্য প্রযোজককে কথা দেয়া, সেই ছবিটি শাকিব খানকে নিয়ে। লন্ডন লাভের পর ডেট দেয়া ছিলো ‘নেত্রী দ্য লিডার’ সিনেমার জন্য। কিন্তু অনন্ত ভাই যেহেতু এই সিনেমাটি এখন করতে চাইছে, তাই ডেট নিয়ে আমার দিক থেকে একটা জটিলতা আছে। সে কারণেই অনন্ত ভাইয়ের সাথে কথা বলেই এই ছবিটি ছেড়ে দিলাম আমি।

‘খোঁজ দ্য সার্চ’ এর এই নির্মাতা আরো বলেন, অনন্ত ভাইয়ের সাথে আমি কথা বললাম, তিনি আমাকে বললেন-‘ঠিকাছে, মুক্তির প্রডিউসার যেহেতু আপনি নিজে, তাহলে এটার কাজ আগে শেষ করুন। আমরা নেক্সট অন্য ছবি করবো।’ তার সাথে অন্য ছবির পরিকল্পনাই করছি এখন। সেটা ‘খোঁজ দ্য সার্চ ২’ হতে পারে, বা অন্য ছবিও হতে পারে।

পুরনো ছবি: মুক্তির মহরত অনুষ্ঠানে অনন্ত ও বর্ষা

মুক্তি ও লন্ডন লাভ ছাড়াও আগামিতে ইফতেখার চৌধুরীর হাতে আছে ‘পিকনিক’ নামে আরো একটি সিনেমা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জানুয়ারিতে মুক্তির শুটিং ষাট ভাগ শেষ, তারমধ্যে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজও চলছে। এটার শুটিং শেষ করে ‘লন্ডন লাভ’ সিনেমাটি করবো। এরপর কথা ছিলো ‘নেত্রী দ্য লিডার’ সিনেমাটি করার, যেহেতু এটি আমি করছি না তাই লন্ডন লাভের পর ‘পিকনিক’ সিনেমাটি শুরু করবো।

বাংলাদেশ ও তুরস্কের যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘নেত্রী দ্য লিডার’। যার ৯৫ শতাংশ শুটিং হবে তুরস্কের বিভিন্ন লোকেশনে, আর ৫ শতাংশ শুটিং হবে ঢাকায়। ছবিটির বিস্তারিত জানাতে ৭ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে এ সিনেমার বিষয়ে একটি চুক্তি অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে গণমাধ্যমে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে বলে জানিয়েছেন অনন্ত।