চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নুসরাতের কাছে ডিভোর্স চাইলেন নিখিল!

জল্পনা-কল্পনায় ইতি টেনে অবশেষে নুসরাতের কাছে বিবাহবিচ্ছেদ চাইলেন স্বামী নিখিল জৈন। গত দু-মাস ধরে এই তারকা দম্পতির দাম্পত্য জীবন সংবাদ শিরোনামে।

নতুন বছরের শুরু থেকেই নুসরাত-নিখিলের দাম্পত্য সম্পর্ক ভাঙার গুঞ্জন উঠে টলিপাড়ায়। দম্পতির সম্পর্কের টানাপোড়েনের মাঝে তৃতীয় ব্যক্তি হিসাবে ঢুকে পড়েছেন যশ দাশগুপ্ত, গুঞ্জন ছিলো তেমনই। এবার গুঞ্জন যেন সত্যি হলো। আইনি পথে হাঁটলেন নিখিল জৈন। কলকাতার আনন্দ বাজার পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, নুসরাতকে ডিভোর্স নোটিশ পাঠিয়েছেন নিখিল জৈন।

বিজ্ঞাপন

যদিও এই খবর পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন নুসরাত জাহান। সোমবার একটি সংবাদ বিবৃতি নুসরাত। সেখানে নায়িকা জানিয়েছেন, আমি সকলকে জানাতে চাই আনন্দবাজার পত্রিকা ডিজিট্যালে একটি সংবাদ ঘোরাফেরা করছে, সেটা সম্পূর্ণরূপে ভুল এবং ভিত্তিহীন। মিডিয়ার উচিত কোনও খবর প্রকাশের আগে সঠিকভাবে তথ্য অনুসন্ধান করা, ফেক নিউজের জোয়ারে গা ভাসানো থেকে বিরত থাকা উচিত।

‘বন্ধু’ যশের সঙ্গে নুসরতের রাজস্থান ট্রিপ, একসঙ্গে মাচা-র অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়া থেকে ছবির প্রিমিয়ার হাজির হওয়া- এই সব নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি নিখিল। তবে কিছুটা বাধ্য হয়েই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি, এমনটাই দাবি করা হয়েছিল প্রতিদেবনে। কোনওভাবেই এই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা সম্ভব নয়, সেটা এতদিনে উপলব্ধি করতে পেরেছেন রঙ্গোলি ইন্ডিয়ার সিইও।

নুসরাতের সঙ্গে বিচ্ছেদের খবর চাউর হওয়ার পর থেকে সরাসরি নুসরাতের বিরুদ্ধে কোনওরকম মন্তব্য করেননি নিখিল। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়াতে কোনও বিরূপ বা কুরুচিকর পোস্ট আকারে ইঙ্গিতেও উড়ে আসেনি নিখিলের তরফে, বরং প্রেমদিবসে তার প্রছন্ন বার্তা ছিল নুসরাত বদলে গেলেও তিনি একই রকম আছেন।

বিজ্ঞাপন