চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নীতি বদলে তালেবানের সঙ্গে আলোচনায় ভারত

জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবানের সঙ্গে কোনো রকম আলোচনায় না বসার দীর্ঘ বছরের নীতি ভেঙে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা করেছে ভারত। নিজেদের দীর্ঘদিনের অবস্থান থেকে সরে এসে এই প্রথম আফগানিস্তান তালেবানদের  আলোচনা শুরু করেছে নয়াদিল্লি।

হিন্দুস্থান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর ফেব্রুয়ারিতে তালেবানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের পর থেকেই ক্রমশ আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নিচ্ছে আমেরিকা। তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেয়োর উপস্থিতিতে সেই চুক্তি স্বাক্ষর করা তালেবান নেতা মুল্লাহ বরাদরের সঙ্গেই আলোচনা শুরু করেছে ভারত।

বিজ্ঞাপন

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ভারতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারাই আলোচনা চালাচ্ছেন। তবে তারা স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন, যে পাকিস্তান ও ইরানের মদত পাওয়া তালেবান নেতাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা করা হচ্ছে না। জঙ্গি সংগঠনগুলোর মদতপুষ্ট হক্কানি বা কোয়েটা সুরার সঙ্গেও কোনো প্রকার আলোচনায় যেতে নারাজ ভারত।

মূলত তালেবানের যে গোষ্ঠীগুলো ‘জাতীয়তাবাদী’ হিসেবে পরিচিত, তাদের জন্যই আলোচনার দরজা খোলা রেখেছে দেশটি।

নতুন উদ্যোগ বিষয়ে এক কর্মকর্তা বলেছেন, আগের নীতির অনেকটা পরিবর্তন হয়েছে। অনেকে মনে করছেন যে, তালেবান নেতাদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া ভালো।

ওই কর্মকর্তা এটাও স্মরণ করে দিয়েছেন যে, আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাইসহ আফগান নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনার সমান্তরালে তালেবানদের সঙ্গেও আলোচনা চালিয়ে যাবে দিল্লি।

যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য প্রত্যাহারের পর আফগানিস্তানে সংকট তৈরি হতে পারে। তাই ভারত চায়, তালেবানের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে কাবুলে স্থায়ী শান্তি স্থাপনের পথ উন্মুক্ত রাখতে।

দেশটি মনে করে, এভাবেই শুধু আফগানিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিশ্চিত হতে পারে।

বিজ্ঞাপন