চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিহতদের আইডি রিমেম্বারিং করেছে ফেসবুক

দুদিন আগেও তারা নিজেদের ছবি দিয়েছিলেন সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে। সেই হাস্যোজ্জ্বল, উচ্ছ্বসিত, প্রবল প্রাণপ্রাচুর্যে ভরা উজ্জ্বল মুখগুলো আজ গভীর বিষাদ আর অনন্ত হাহাকারের স্মৃতি। উচ্ছ্বলতায় নিজেদের সরব উপস্থিতি আর কখনো জানান দেবেন না তারা। ফেসবুক আইডিতে নামের উপর ছোট করে লেখা থাকবে এক টুকরো অতলান্ত বিষাদগাথা -‘রিমেম্বারিং’।

নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক প্রাণঘাতী উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় ৫১ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে ২৮ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি এবং ১ জন চীনা নাগরিক।  এদের অনেকেরই আইডি ‘রিমেম্বারিং’ করেছে ফেসবুক।

মধুচন্দ্রিমা বা শুধুই ভ্রমণে গিয়েছিলেন কেউ, আর নেপালি শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিয়ে ফিরছিলেন দীর্ঘ প্রতীক্ষায় রত বাবা-মা বা স্বজনদের কাছে। সেই প্রতীক্ষার প্রহর আর ফুরাবে না। প্রকৃতির স্বর্গীয় মহিমা আস্বাদনের সুযোগও আর তারা পাবেন না, কখনোই আর ফিরবেন না প্রিয়দের কাছে। এক মর্মান্তিক মৃত্যুর দুঃসহ স্মৃতি হয়ে তাড়িয়ে বেড়াবেন আজীবন।

আড়াই বছরের তামাররা প্রিয়ক বা অনিরুদ্ধ জামানের (৮) মতো যে শিশুরা হারিয়ে গেলো, তাদের চঞ্চলতায় আর আচ্ছন্ন হবে না কেউ, কপট অসন্তোষ জানাবে না, প্রজাপতির মতো সৌরভ ছড়াবে না। এক সীমাহিন দীর্ঘশ্বাস, প্রবল হাহাকার হয়ে রয়ে যাবে। গভীর বিষণ্নতা ছড়াবে প্রতিনিয়ত।

সোমবার ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বোমবার্ডিয়ার ড্যাশ ৮কিউ৪০০ উড়োজাহাজটি ঢাকা থেকে ছেড়ে গিয়ে দুপুর ২টা ২০মিনিটে নেপালে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণ করার সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়।

উড়োজাহাজটিতে থাকা ৬৭ যাত্রীর পাশাপাশি ৪ জন ক্রু ছিলেন বলে ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

উড়োজাহাজে সিলেটের বেসরকারি রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের ১৩ নেপালি শিক্ষার্থী ছিলেন।এমবিবিএস ১৯তম ব্যাচের ফাইনাল প্রুফ পরীক্ষা দিয়ে দুইমাসের ছুটিতে নেপালে নিজের পরিবারের কাছে ফিরছিলেন তারা।

রফিক জামান
প্রতিবন্ধী নাগরিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ছিলেন রফিক জামান। তার স্ত্রী সানজিদা হক বিপাশা কাজ করতেন হাঙ্গার প্রজেক্ট নামের একটি এনজিওতে। তাদের ছয় বছর বছরের সন্তান অনিরুদ্ধ প্রথম শ্রেণিতে পড়ত ধানমন্ডির অরণি স্কুলে। দুর্ঘটনাগ্রস্থ সেই ফ্লাইটটিতে থাকা এই তিনজনই নিহত হন।

কারও বিপদ দেখলেই ঝাঁপিয়ে পড়া, সমাজসেবার প্রতি প্রচণ্ড আগ্রহী, বন্ধু-স্বজন, প্রতিবেশীদের কাছে তুমুল প্রিয় রফিক জামানের ফেসবুক আইডি ‘রিমেম্বারিং’ করেছে ফেসবুক।

ভ্রমণের জন্য নেপাল যাত্রা করা এই পরিবারের সানজিদা হক বিপাশার আইডিও ‘রিমেম্বারিং’ করেছে ফেসবুক।

তাহিরা তানভিন শশী
তাহিরা তানভিন শশী স্বামী ডা. রেজওয়ানুল হকের সাথে কাঠমান্ডু যাচ্ছিলেন বিয়ের সপ্তম বার্ষিকী উদ্‌যাপন করতে। পাশাপাশি সিটে বসে ছিলেন তারা। উড়োজাহাজটি আকাশে ডানা মেলতেই শশী পোস্ট দিয়েছিলেন—‘এবং যাত্রা হলো শুরু’। কিন্তু আনন্দময় এ যাত্রার শেষটা বড় বিষাদময়। যাত্রা শেষে উচ্ছল শশী আর নেই।

Advertisement

ডা. রেজওয়ানুল হক চিকিৎসাধীন থাকলেও মারা গেছেন শশী। কাঠমান্ডুর ওম হসপিটাল এন্ড রিসার্চ সেন্টারের আইসিইউতে থাকা রেজওয়ানুলকে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে নেয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। স্ত্রীর মৃত্যুর খবর তাকে জানানো হয়নি।

এফ এইচ প্রিয়ক
আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত ফটোগ্রাফার এফ এইচ প্রিয়ক (৩২) যাচ্ছিলেন স্ত্রী অ্যানি প্রিয়ক (২৬) ও আড়াই বছরের একমাত্র মেয়ে তামাররা প্রিয়ককে নিয়ে। যাত্রা শুরুর আগে আনন্দোচ্ছ্বল একটি ছবির সাথে অ্যানি ফেসবুকে লিখেছিলেন, “Ready to fly to Kathmandu from Hazrat Shahjalal International Airport …Pls keep us on your prayer”। কিন্তু হায়! এমন বিভিষীকা যে ছিলো অপেক্ষায়, কে জানতো!

একই উড়োজাহাজে ছিলেন প্রিয়কের মামাতো ভাই মেহেদী হাসান মাসুম (৩০), মাসুমের স্ত্রী সৈয়দা কামরুন্নাহার স্বর্ণা (২৫)।

সোমবার নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে বাবা এফ এইচ প্রিয়কের সঙ্গে মারা গেছে ছোট্ট এ শিশুটিও। এই ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছেন তামাররার মা এনী প্রিয়কও।

পৃথুলা রশিদ
দুর্ঘটনায় প্রথমেই মৃত্যু হয় ওই ফ্লাইটের সহকারি পাইলট এবং ইউএস বাংলার প্রথম নারী পাইলট পৃথুলা রশিদের। নিজের জীবন উৎসর্গ করে ১০ জন নেপালি যাত্রীকে বাঁচিয়েছেন বাংলাদেশের বাণিজ্যিক বিমানের প্রথম এই নারী পাইলট। নেপালের গণমাধ্যম তাকে আখ্যায়িত করেছে ‘ডটার অব বাংলাদেশ’ নামে।

ফেসবুকে পৃথুলা রশিদ নিজের সম্পর্কে লিখেছিলেন, Ordinary girl with extraordinary love for aviation, literature and floofz animals. কিন্তু মৃত্যুর মধ্য দিয়েই তিনি প্রমাণ করে গেলেন, সাধারণ কেউ ছিলেন না তিনি। জীবন বাঁচানোর মহত্ত্বে অনন্য হয়ে রইবেন তিনি।

ফয়সাল আহমেদ
বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বৈশাখীর স্টাফ রিপোর্টার ফয়সাল আহমেদ (২৯) হয়তো নিহতদের তালিকায় থাকবেন না। দুর্ঘটনার ২৪ ঘন্টা পরেও এমন আশা ধরে রেখেছিলো স্বজন-বন্ধুরা। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর বিটের খবর কভার করা এই সাংবাদিক নিহতদের পাল্লাই ভারী করলেন। মৃত্যুর তিন দিন আগেও আওয়ামী লীগ বিটের রিপোর্টারদের নৌবিহারের রাফেল ড্র’তে প্রথম পুরস্কার পেয়েছিলেন ফয়সাল। ৪০” সনি ব্রাভিয়া টিভি হাতে নেওয়ার সময় তার হাস্যোজ্জ্বল ছবিটি কি এখন তীক্ষ্ণ যন্ত্রণায় বিঁধছে না?

আইডি রিমেম্বারিং
মৃত ব্যক্তির প্রোফাইলে থাকা ব্যক্তিদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের পর কোনো আইডি রিমেম্বারিং করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

কোনো আইডি ‘রিমেম্বারিং’ করা হলে নতুন করে আর কেউ সেই আইডিতে প্রবেশ করতে পারবেন না। একইসঙ্গে সেই আইডিটি আর হ্যাক করার কোনো সুযোগ থাকবে না। আইডিটি সম্পূর্ণ ফেসবুক কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণে চলে যাবে।

তবে আগে থেকে যারা সেই আইডিতে বন্ধু হিসেবে ছিলেন তারা ওই আইডির তথ্য এবং ছবি দেখতে পারবেন।