চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জাবির হলে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে অবস্থান নিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

হল ত্যাগে কর্তৃপক্ষের নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে আগের দাবির সঙ্গে নতুন কয়েকটি যোগ করেছে তারা। দাবি পূরণ না হলে পরবর্তী কঠোর কর্মসূচিতে যাবার হুঁশিয়ারিও তাদের।

বিজ্ঞাপন

চার দিন আগে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন গেরুয়া এলাকায় স্থানীয়দের সঙ্গে সংঘর্ষের পরে নিরাপত্তার দাবিতে শনিবার দিনভর বিক্ষোভ দেখিয়ে তালা ভেঙে হলে ঢুকে পড়েন শিক্ষার্থীরা। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

হল না ছাড়ার ঘোষণা দিয়ে শিক্ষার্থীরা বলেছেন, হল থেকে তাদের বের করার চেষ্টা করা হলে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

আন্দোলনরত উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী (৪৬ তম ব্যাচ) শারমিন আক্তার সাথী জানান, ১৭ মে হল আর ২৪ মে ক্লাস শুরুর সরকারি ঘোষণাকে আমরা স্বাগত জানাই। তবে জাহাঙ্গীরনগরের পরিস্থিতি অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো না, ভিন্ন। এখানকার অনেক শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদালয় সংলগ্ন বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করছে। শিক্ষার্থীরা নিরাপদে নেই। এই পরিস্থিতিতে হলে অবস্থানের সিদ্ধান্তে এখনও আমরা অটল আছি এবং অন্যান্য শিক্ষার্থীদের আমরা আহ্বান জানিয়েছি। পর্যায়ক্রমে তারাও হলে উঠবে।

তবে প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয় নিজস্ব স্বায়ত্তশাসনের মধ্যে পরিচালিত হলেও রাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে হল খুলে দেওয়ার সুযোগ নেই।

কোভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারিতে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষায় সরকারি নির্দেশে দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েও ২০২০ সালের ১৯ মার্চ থেকে ক্লাস ও হল বন্ধ রয়েছে। তবে অনলাইন ক্লাস চালু রয়েছে।