চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নির্বাচনকে সামনে রেখে র‌্যাবের ‘রোবাস্ট পেট্রোলিং’

নির্বাচনকালীন সময়ে জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা বজায় রাখতেই সারা দেশেই এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান-র‌্যাব শুরু করেছে রোবাস্ট পেট্রোলিং।

আসন্ন ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে র‌্যাব-৩ তাদের দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় রোবাস্ট পেট্রোল এবং প্রতিনিয়ত মনিটরিং এর মাধ্যমে অধিকতর নজরদারী অব্যাহত রেখেছে।

Advertisement

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৩ বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট মাজার, প্রেস ক্লাব, কদম ফোয়ারা এলাকায় টহল বৃদ্ধি করে। এছাড়াও নটরডেম কলেজ, ফকিরাপুল, কাকরাইল মোড়, ভিআইপি রোড, শেরাটন, শাহবাগ, দোয়েলচত্বর, মতিঝিল, আইডিয়াল স্কুল, রাজারবাগ মোড়, মালিবাগ, মৌচাক, মগবাজার মোড় রমনা এলাকায় রোবাস্ট পেট্রোলিংয়ের মাধ্যমে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে।

রোবাস্ট পেট্রোলিং নিয়ে জানতে চাইলে র‌্যাব-৩ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: রাজধানী ঢাকাতেও বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ জায়গা রয়েছে। যা অশান্ত হলে দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। আমাদের মূল উদ্দেশ্য হল আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সঠিক রাখা। যেকোনো মূল্যে জনগণের জান-মালের নিরাপত্তা দেয়া, জনস্বার্থে কাজ করা।

নির্বাচন কেন্দ্রীক সময়গুলোতে নজরদারি কেমন হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি ও সাদা পোশাকের নজরদারি বৃদ্ধি করবো। যখনই গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে আমরা তথ্য পাবো তখনই রোবাস্ট পেট্রোলিং করবো। এছাড়াও আমাদের নিয়মিত পেট্রোলিং চলতে থাকবে। এমরানুল হাসান বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিকে বিবেচনায় রেখে কেউ যদি কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায় তবে সেটিকে কঠোরভাবে দমন করতে র‌্যাব-৩ ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। এজন্য সারাদেশে রোবাস্ট পেট্রোলিং এর মাধ্যমে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের অংশ হিসেবে র‌্যাব-৩ এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় টহল এবং চেকপোস্ট জোরদার করা হয়েছে। জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রার মান বজায় রাখার মূল লক্ষ্য হিসেবে এ পেট্রোলিং করা হচ্ছে।