চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিজের শিশুকে হত্যার দায়ে কারাগারে থাকা নারীর ‘আত্মহত্যা’

মাগুরা জেলা কারাগারে সুফিয়া বেগম সাথি (৪০) নামে এক আসামী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে বুধবার সকালে ‘আত্মহত্যা’ করেছেন।

নিজের ৩ বছরের শিশুকন্যাকে হত্যার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গত ৩ মাস ধরে হাজতবাস করছিলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মাগুরা জেল সুপার তায়েফ উদ্দিন জানান: নিজ কন্যা শিশু হত্যার দায়ে দায়েরকৃত একটি মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে তিনি গত ৮ মার্চ মাগুরা জেলা কারাগারে আসেন। মানসিক অসুখে ভুগছিলেন ওই নারী। গত ১৫ মার্চ থেকে ২ মে পর্যন্ত খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীনে রাখা হয় তাকে। পরবর্তীতে মাগুরা জেলা কারাগারের নারী ওয়ার্ডে এনে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন: আজ দুপুর দেড়টার দিকে গোসল করার কথা বলে নারী ওয়ার্ড সংলগ্ন একটি ছোট কয়েদখানায় গিয়ে লোহার দরজার ওপরের দিকের গ্রিলে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন সুফিয়া বেগম সাথি। এসময় দ্রুত তাকে উদ্ধার করে মাগুরা সদর হাসপাতালে আনা হলে কিছুক্ষণের মধ্যে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায়, পারিবারিক ও দাম্পত্য কলহসহ নানা কারণে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত সুফিয়া গত ৮ মার্চ মাগুরা শহরের হাজী আব্দুল সড়কের একটি বাসায় তার ৩ বছরের শিশুকন্যা মাহিকে শ্বাসরোধে হত্যা করে। এ সময় রান্না ঘরে গ্যাস সিলিন্ডারে আগুন লাগিয়ে নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে। পাশাপাশি গ্রেপ্তার হন সুফিয়া।

ওই রাতে নিহত মাহির চাচা তমিজউদ্দিন বাদি হয়ে মাগুরা সদর থানায় সুফিয়ার নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালতের নির্দেশে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।