চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিখোঁজের ৪৫ দিন পর প্রবাসী যুবকের মরদেহ উদ্ধার

টাঙ্গাইলের কালিহাতী থেকে নিখোঁজের ৪৫ দিন পর মোশারফ হোসেন নামের প্রবাসী এক যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার বিকেলে উপজেলার বীল বাসিন্দা ইউনিয়নের গজারির বিল থেকে ইটের বস্তায় বাধা অবস্থায় টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সহযোগিতায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

নিহত মোশারফ হোসেন ঘাটাইল উপজেলার দীঘড় ইউনিয়নের নয়াবাড়ি গ্রামের মো. সেকান্দার আলীর ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, আজ সকালে জেলেরা গজারিয়া বিলে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে জাল টান দিলে মোজাসহ মানুষের পায়ের গোড়ালির হাড় দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের জানায়। পরে স্থানীয়রা কালিহাতী থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে টাঙ্গাইল ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে দুপুরে ডুবুরী দল এসে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় অর্ধগলিত মরদেহটি উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন

কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ হাসান আল মামুন লাশ উদ্ধারের সত্যতা স্বীকার করে বলেন: ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

গত ৪ আগস্ট ঘাটাইলের কদমতলী গরুর হাট থেকে ফেরার পথে রাত ৯টার দিকে নিখোঁজ হয় প্রবাসী মোশারফ। পরের দিন তার পরিবার ঘাটাইল থানায় জিডি করলে পুলিশ তার কললিস্টের সূত্র ধরে প্রতিবেশী সৌদি প্রবাসী ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী ও কালিহাতী উপজেলার বীর বাসিন্দা গ্রামের মৃত মেসের আলী মণ্ডলের মেয়ে নাসিমাকে গত ১৬ আগস্ট রাতে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দীর্ঘদিনের পরকীয়ার কথা স্বীকার করে।

স্বীকারোক্তিতে তিনি আরও বলেন: গত ৪ আগস্ট মোশারফের সাথে দেখা ও ভাই আখতারের পরিকল্পনায় এবং সহায়তায় উপজেলার বীরবাসিন্দা এলাকায় হত্যা করা হয়। মরদেহটি তার ভাই আখতার কোথায় লুকিয়ে রেখেছে জানাতে পারেনি সে।

পরে নাসিমাকে গত ১৭ আগস্ট আদালতে প্রেরণ করে কালিহাতী থানা পুলিশ। আখতার পলাতক থাকায় দীর্ঘ দিনেও তা উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। আখতার এখনো পলতক রয়েছে।

Bellow Post-Green View