চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিউজ পোর্টালেও ইন্ডিয়ান টিভি সিরিয়ালের সেনসেশন!

ভারতের ২ টি অখ্যাত নিউজ পোর্টাল লিখলো, “গুলি করে বিএসএফ মারার অপরাধে বিজিবির দুই সদস্যের কোর্ট মার্শাল ও তাদের বদলি করা হয়েছে”, আর অমনি কোনো ধরনের ক্রসচেক অনুসন্ধান ছাড়াই হইচই পড়ে গেলো বাংলাদেশজুড়ে। এরই মধ্যে ভারতবিরোধী কার্ড খেলতে শুরু করে দিলো বাংলাদেশের সরকারবিরোধীরা। ভারতীয় প্রোপাগান্ডা মেশিনে যোগ দিলো কিছু বাংলাদেশি মিডিয়াও। মৌলবাদী মহলে শুরু হয়ে গেলো নতজানু (!)’ আর ‘দালাল(!)’ সরকারের বিরুদ্ধে গালাগালিও। গরম সোশাল মিডিয়াও।

কেউ কি ভেবে দেখেছেন, এটা আসলে সত্য কি না?

ভারতের মিডিয়ায় ভর করে যে সব বাংলাদেশি মিডিয়া আউটলেট নিউজটা দিয়েছে, তারা কি এ ব্যাপারে তাদের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মন্তব্য নিয়েছে? এখন পর্যন্ত আমার চোখে পড়েনি। ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক নিশ্চয়ই অনুবাদের দোকান নয় যে, আক্ষরিক অনুবাদ করে ছেড়ে দেবে। সাংবাদিকতার মৌলনীতিতে রাষ্ট্রীয় কাঠামোর প্রতি যে দায়বোধ, তা সম্পর্কে কি অবগত বাংলাদেশের মিডিয়া? বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সাথে কথা না বলে ভারতীয় মিডিয়ার এই কপিপেস্ট, এটা যেমন সাংবাদিকতার মৌলনীতি পরিপন্থি; একই সাথে রাষ্ট্রবিরোধিতাও।

বিজ্ঞাপন

ভারতের ব্রাহ্মণ্যবাদী প্রোপাগান্ডা মেশিন যথারীতি এবারও পদ গুলিয়ে ফেলেছে। অক্টোবরে পদ্মাপারের ঘটনায় যেমন তারা বলেছিল—বিজিবির গুলিতে বিএসএফের মেজর খুন; এবারও তেমনই বলছে—বিজিবির ডিআইজিকে বদলি। বিএসএফে মেজর পদ নেই, বিজিবিতেও নেই ডিআইজি পদ।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। চ্যানেল আই অনলাইন এবং চ্যানেল আই-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

শেয়ার করুন: