চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলাকারীর যাবজ্জীবন সাজা

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫১ জনের হত্যাকারীকে প্যারোল ছাড়াই যাবজ্জীবনের সাজা দিয়েছে নিউজিল্যান্ডের আদালত।

দেশটির ইতিহাসে এই প্রথম কাউকে এমন সাজা দেওয়া হলো।

বিজ্ঞাপন

গত বছরের মার্চে দুটি মসজিদে হামলার ঘটনায় ব্রেনটন ট্যারেন্ট ৫১টি হত্যার অভিযোগ, ৪০টি হত্যাচেষ্টার অভিযোগ ও একটি সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে অভিযুক্ত হন।

বিজ্ঞাপন

বিচারক তার এই কাজকে ‘অমানবিক’ অভিহিত করে বলেন, সে কোনো দয়া দেখায়নি।

বৃহস্পতিবার ক্রাইস্টচার্চের একটি আদালতে বিচারক ক্যামেরন ম্যান্ডার বলেন, অপরাধগুলো এতটাই ভয়াবহ যে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত অপরাধীকে আটক রাখা হলেও শাস্তির প্রয়োজনীয়তা হারাবে না।

বিজ্ঞাপন

প্যারোল ছাড়াই যাবজ্জীবনের সাজার বিষয়ে বিচারপতি মান্ডার বলেন, এই অপরাধে না হলে আর কবে হবে?

তবে আইনজীবীর মাধ্যমে ট্যারেন্ট জানিয়েছে, সে যাবজ্জীবন সাজার কোনো বিরোধিতা করবে না। এমনকি এর আগে কথা বলার অধিকারও গ্রহণ করেনি সে।

গত বছরের মার্চে ওই হামলার ঘটনার পরে নিউজিল্যান্ডে কঠোর বন্দুক আইন প্রণয়ন করা হয়।

চারদিন ব্যাপী এই সাজার শুনানি চলে এবং ৬০ জন আক্রান্তের বর্ণনা শোনা হয়। শেষদিন আদালতে কোরআনের আয়াত পাঠ এবং নিহতদের ছবি আদালতে দেখানো হয়।

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা চালিয়ে ৫১ জনকে হত্যা করে অস্ট্রেলিয়ান ব্রেনটন ট্যারেন্ট। সেই হামলার সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাইভও করে সে। ক্রাইস্টচার্চ থেকে প্রায় এক ঘণ্টা দক্ষিণে অ্যাশবার্টনের তৃতীয় মসজিদে হামলা চালানোর সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।