চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিউইয়র্কে জাদুঘরের সামনে থেকে সরানো হচ্ছে রুজভেল্টের ভাস্কর্য

যুক্তরাষ্ট্রের আফ্রিকান-আমেরিকান নাগরিক জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে চলমান নাগরিক আন্দোলনের মুখে অপসারিত হচ্ছে সাবেক প্রেসিডেন্ট রুজভেল্টের ভাস্কর্য।

বিবিসি বলছে, নিউইয়র্ক নগরীর আমেরিকান মিউজিয়াম অব ন্যাচরাল হিস্ট্রি ভবনের সামনে থেকে এটি অপসারণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

১৯৪০ সালে ঘোড়ার পিঠে বসা সাবেক প্রেসিডেন্ট থিওডোর রুজভেল্টের ব্রোঞ্জের ভাস্কর্যটি বসানো হয় মিউজিয়ামের সামনে। ঘোড়ার পাশে একজন ন্যাটিভ আমেরিকান ও একজন কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি দাঁড়িয়ে আছেন, যা বর্ণবৈষম্য প্রকাশ করে বলে অভিযোগ আন্দোলনকারীদের। প্রায় ৮০ বছর পর এবার তা সরিয়ে ফেলা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

মূলত গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান বর্ণবৈষম্য-বিরোধী প্রতিবাদ থেকে এই ভাস্কর্য অপসারণের স্লোগান উঠলে এটি অপসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে নগর কর্তৃপক্ষ। আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে মিউজিয়াম কর্তৃপক্ষের আবেদন করলে তাতে রাজি হয় নগর কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

নগরীর মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বলেন, মিউজিয়ামের অনুরোধ রক্ষা করছি আমরা।

মিউজিয়ামের প্রেসিডেন্টও এটি সরানোর প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেছেন।

তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এটিকে হাস্যকর উল্লেখ করে ভাস্কর্য না সরানোর আহ্বান জানিয়ে টুইট করেছেন।

থিওডোর রুজভেল্ট ছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ২৬তম প্রেসিডেন্ট। তিনি ১৯০১ সাল থেকৈ ১৯০৯ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন।