চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নারী ক্রিকেট দলে ৯ নতুন মুখ

টিম টাইগ্রেসকে আরও শক্তিশালী করতে দলে যোগ দিয়েছে নতুন ৯ ক্রিকেটার। ‘যোগ্যতা কিংবা আত্মবিশ্বাস’- কোনটাতেই কমতি নেই তাদের।

আগামীতে নারী ক্রিকেটও যেন ছেলেদের সঙ্গে সমানতালে এগিয়ে যেতে পারে সেদিকে নজর রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিসিবি।

২০০৭ সালে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত দুটি ম্যাচ দিয়ে হয়েছিলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টিম টাইগ্রেসের পদার্পণ। সময়টা খুব কম হলেও অর্জনের খাতা শূন্য নয়। তবে সংকট নতুন খেলোয়াড়ের। তার ওপর দল ছেড়ে গেছেন দুই সদস্য।

দীর্ঘদিনের খরা কাটিয়ে সম্প্রতি দলে নতুন ৯ ক্রিকেটারকে জায়গা দিয়েছে বিসিবি। বাছাইপর্ব শেষে বিকেএসপিসহ দেশের নানা প্রান্ত থেকে সালমা বাহিনীতে যোগ দিয়েছেন ভবিষ্যতের সম্ভাব্য তারকারা। নতুন হলেও আত্মবিশ্বাসে একটুও ঘাটতি নেই তাদের।

বিজ্ঞাপন

দলে নতুন আসা জান্নাতুল ফেরদৌস জানালেন, বাছাইপর্বে আমরা ভালো করেছি। এভাবে খেলতে থাকলে অবশ্যয় জাতীয় দলে সুযোগ পাবো।

নতুনদের নিয়ে সন্তুষ্ট কোচ চাম্পিকা গামাগি ও অধিনায়ক সালমা খাতুন। তারা জানিয়েছেন, নতুনদের আরো ভালো পারফরমেন্স দেখাতে হবে। ভালো করলে নিয়মিতই দলে সুযোগ পাবে নতুনরা।

বিসিবির নির্বাচক হাবিবুল বাশার বলেন, তারা মেয়েদের ক্রিকেটকে আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে অনেক বেশি। আরো বেশী নারী ক্রিকেটারের প্রয়োজন রয়েছে। আমরা চাই আরো মেয়েরা ক্রিকেটে আসুক।

টিম টাইগ্রেসের আগামী মিশনে জায়গা করে নিতে জাহানারা-শুকতারাদের সঙ্গে একই কাতারে দাঁড়িয়ে ৯ জনের এখন চলছে নিজেদেরকে আন্তর্জাতিক মানের করে গড়ে তোলার চেষ্টা।

বিজ্ঞাপন