চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নভেম্বরে শুরু ‘বঙ্গবন্ধু’র শুটিং, যুক্ত হলেন পিপলু খান

বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও সংগ্রামের ওপর ভিত্তি করে ১৮০ মিনিটের চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হচ্ছে নভেম্বরে…

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনী নিয়ে নির্মিতব্য ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনার ছবিটির কাজ বেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর, ছবিটির শুটিং শুরু হবে আগামি নভেম্বরে। আর বিগ বাজেটের এই সিনেমায় যুক্ত হলেন গেল বছর ‘হাসিনা: এ ডটারস টেল’ নির্মাণ করে সাড়া ফেলে দেয়া নির্মাতা পিপলু খান।

বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইনে প্রকাশিত এক সংবাদে জানা যায়, ৭ মে দিল্লীতে বাংলাদেশ-ভারত কর্মকর্তা পর্যায়ের এক সভায় বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিতব্য ছবিটি নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভীর নেতৃত্বে বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে ছিলেন ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ও তথ্য সচিব আব্দুল মালেক এবং ভারতের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন তথ্য ও সম্প্রচার সচিব অমিত খারে।

বৈঠক শেষে জানানো হয়, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শ্যাম বেনেগালের পরিচালনায় নির্মিতব্য চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখবেন অতুল তিউয়ারি। আর এই কাজে তথ্য ও গবেষণায় সহযোগিতা করবেন বাংলাদেশের পিপলু খান।

ছবির চিত্রনাট্য লেখার আগে অতুল তিউয়ারি আগামি সপ্তাহে বাংলাদেশে আসবেন বলেও জানান বেনেগাল।

তিনি আরো জানান, বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও সংগ্রামের ওপর ভিত্তি করে ১৮০ মিনিটের চলচ্চিত্রটি ‘মুজিব বর্ষ ২০২০-২১’ শেষ হওয়ার আগেই এই চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে নির্মিতব্য চলচ্চিত্রটি নিয়ে সম্প্রতি দিল্লীতে দুই দেশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বৈঠকের পর বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সেখানে শ্যাম বেনেগাল কথা বলেন বঙ্গবন্ধুর চরিত্রটিতে কে অভিনয় করবেন সে প্রসঙ্গসহ অন্যান্য চরিত্র নিয়েও।

শ্যাম বেনেগাল বলেন, এই চলচ্চিত্রের জন্য বেশিভাগ অভিনেতা-অভিনেত্রী নেয়া হবে বাংলাদেশ থেকে এবং শিগগিরই আমরা অভিনেতা-অভিনেত্রী খোঁজার কাজটি শুরু করে দেব। অবশ্য বঙ্গবন্ধুর মতো মহান নেতার চরিত্রে যিনি অভিনয় করবেন তাকে পছন্দ করা হবে একটি কঠিন কাজ।

তিনি আরো জানান, পান্ডুলিপির আনুসঙ্গিক বিষয় ও পাত্র-পাত্রী নির্বাচনের মতো কাজ হয়ে গেলে শুটিংয়ের জন্য সর্বোচ্চ ৮০ দিন লাগবে। শুটিং পরবর্তী কাজ হবে মুম্বাইয়ে। ইংরেজি সাব-টাইটেলসহ চলচ্চিত্রটি নির্মিত হবে বাংলা ভাষায় এবং পরে অন্যান্য ভাষায় এটি তৈরি করা হবে।

শেয়ার করুন: