চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নভেম্বরের বিপিএল পিছিয়ে জানুয়ারিতে

করোনা মহামারির কারণে গত মৌসুমে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) মাঠে গড়ায়নি। এ বছরও হওয়ার সম্ভাবনা কম। নভেম্বরের বিপিএল দুই মাস পিছিয়ে হতে পারে আগামী বছরের জানুয়ারিতে।

জাতীয় দলের আন্তর্জাতিক সূচির কারণেই বিপিএল পেছানোর ভাবনা আয়োজকদের। তবে এখনো সব চূড়ান্ত নয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক ও বিপিএল গভর্ণিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক শনিবার ঘরোয়া ক্রিকেট ক্যালেন্ডার নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেছেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন: বিপিএল হচ্ছে কি হচ্ছে না সেটা আমরা আমাদের সূচি দেখে বলতে পারবো। দুইটা উইন্ডো খোলা আছে। একটা নভেম্বরে। ওই সময়ে আবার বাংলাদেশ দলের পাকিস্তানে যাওয়ার কথা আছে। ডিসেম্বরে আবার নিউজিল্যান্ড আসার কথা সম্ভবত। সেখানে বিপিএল পিছিয়ে জানুয়ারিতে হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

করোনাকালে প্রথম শ্রেণির আসর জাতীয় লিগ দিয়ে চলতি মার্চে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরবে বাংলাদেশে। মে মাসে হতে পারে গত বছরের মার্চে এক রাউন্ড হওয়ার পর স্থগিত হয়ে যাওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ।

এ বিষয়ে ইসমাইল হায়দার বলেন: আমরা ক্রিকেট ক্যালেন্ডার নিয়ে দু’দিন মিটিং করেছি। আমাদের জাতীয় দলের যে ব্যস্ত সূচি। এর ফাঁকে ফাঁকে ঘরোয়া ক্রিকেটের সূচি সাজাতে হচ্ছে। এর মধ্যে আমাদের ঢাকা লিগ আছে। জাতীয় লিগ এবং বিসিএল ও বিপিএল আছে। এখন পযন্ত ক্যালেন্ডার ফাইনাল হয়নি। সো ফার ইনিশিয়াল সিদ্ধান্ত মার্চে এনসিএল এবং মে মাসে ঢাকা লিগ শুরু করবো। সব কয়টি আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হবে।

বিপিএল আয়োজনের স্লট মূলত নভেম্বর-ডিসেম্বর। তবে সবশেষ আসর বঙ্গবন্ধু বিপিএল হয়েছিল ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে।

বিজ্ঞাপন