চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নবজাতক ভর্তি দিল্লিতে, হাজার কিলোমিটার দূর থেকে আসছে মায়ের দুধ

দু’জন মানুষ প্রতিদিনই ছুটছেন দিল্লি বিমানবন্দরে। অপেক্ষায় থাকেন মায়ের দুধের জন্য। উড়োজাহাজে আসা কন্টেইনার থেকে নামানো হবে সেই দুধ। এরপর তারা ছুটবেন হাসপাতালে মায়ের দুধের অপেক্ষায় থাকা শিশুর কাছে।

প্রায় একমাস ধরে এভাবে দিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি নবজাতকের কাছে মায়ের দুধ পৌঁছে দিতে হচ্ছে। এই কাজটি যারা করছেন ৩৩ বছর বয়সী জিকমেট ওয়াঙ্গদুস আর তার এক আত্মীয়। আর সেই দুধ আসছে জম্মু-কাশ্মীরের লেহ থেকে। দিল্লির সঙ্গে যার দূরত্ব হাজার কিলোমিটার।

বিজ্ঞাপন

মূলত জিকমেটের স্ত্রী ৩০ বছর বয়সী দোরজে পালমো গত ১৬ জুন লেহের সোনম নুরবু মেমোরিয়াল হাসপাতালে অপারেশনের মাধ্যমে একটি শিশুর জন্ম দেন।  জন্মের কিছুক্ষণ পরই জানা যায়, সন্তান মায়ের দুধ পান করতে অক্ষম। তখনই মাকে লেহের হাসপাতালে রেখে শিশুটিকে দিল্লিতে নিয়ে আসেন তার মামা। ততক্ষণে মাইসুরু থেকে বিমানে দিল্লি পৌঁছেন শিশুর বাবা জিকমেট। তিনি মূলত মাইসুরুর এডুকেশন ইনস্টিটিউটে ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত আছেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

দিল্লির বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে দেখেন, নবজাতকের খাদ্যনালী ও শ্বাসনালী একসঙ্গে জুড়ে আছে। জটিল অস্ত্রোপচার করা হয়। চার দিনের শিশুর জন্য সেটা ছিলো তা এক বড় লড়াই।

তিনদিন ধরে নল লাগিয়ে শিশুটিকে খাওয়ানো হচ্ছিলো। এরপর চিকিৎসকরা বললেন, মায়ের দুধ খাওয়াতে হবে। কিন্তু মা দিল্লিতে আসতে পারছেন না।

এমন কঠিন মুহূর্তে এগিয়ে আসে একটি উড়োজাহাজ সংস্থা। মায়ের দুধ ভর্তি পাত্রগুলো তারা দিল্লিতে প্রতিদিন পৌঁছে দিচ্ছে বিনে পয়সায়।

শিশুটির বাবা জানান, যখন আমার সন্তানের বয়স ২ দিন তখন মাত্র একটিবার আমি সন্তানকে স্পর্শ করেছিলাম। এরপর আর স্পর্শ করিনি। কারণ, আমি কর্ণাটক থেকে এখানে আসি। সেখানে অনেক বেশি কোভিড-১৯ আক্রান্ত মানুষ।