চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ধোনির অবসর নিয়ে জানালেন কোহলি

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছে ভারত। টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার আগে শিরোপার প্রবল দাবিদার মানা ভারতীয় দল লিগ ম্যাচে চ্যাম্পিয়নের মতোই খেলে। কিন্তু সেমিফাইনালে তাদের হারের মুখে পড়তে হয়। নিউজিল্যান্ডের কাছে ১৮ রানে হেরে বিদায় নিতে হয় বিরাট কোহলির দলকে।

ভারতের বিদায়ের পরপরই দলের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনির বিশ্বকাপের পর অবসর নেয়ার কথা চলছে। ৩৮ বছরের ধোনি ২০০৪ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজের প্রথম ওয়ানডে খেলেছিলেন। তারপর থেকে তিনি লাগাতার ভারতীয় দলের অংশ ছিলেন। গত কিছুদিন ধরে ধোনির ব্যাট থেকে আগের মতো রান বেরোচ্ছে না। এই বিশ্বকাপে ধোনি বেশকিছু ভালো ইনিংস খেললেও তাতে পুরোনো ধোনির ঝলক দেখা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসরের ব্যাপারে যেসব কথা হচ্ছে তা নিয়ে বিরাট কোহলিকেও প্রশ্ন করা হয়। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হারের পর কোহলি প্রেসকনফারেন্সে মিডিয়ার প্রশ্নের জবাব দেন। যখন কোহলিকে ধোনির অবসরের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হয় তখন বলেন, ‘ধোনি এখনো পর্যন্ত এ ব্যাপারে আমাদের কিছু বলেননি।’

৯২ রানে ৬ উইকেটে হারানো মরা ম্যাচে রবীন্দ্র জাদেজাকে নিয়ে প্রাণ ফিরিয়েছিলেন ধোনি। জাদেজার ৭৭ রানের পর ৭২ বলে ধোনি নিজে ৫০ রান করে দলকে জয়ের কাছেই নিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু রানআউটের খাড়ায় পড়ে শেষ পর্যন্ত পারেননি। ম্যাচ শেষে অবশ্য দুজনের ইনিংসেরই ব্যাপক প্রশংসা করেন কোহলি।

ভারত যতই এই বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাক, একসময় এই ধোনির নেতৃত্বেই ভারত বিশ্বকাপ জয়ী হয়েছিল। ২০১১তে ঘরের মাঠে হওয়া টুর্নামেন্টের খেতাব জেতে তারা। ফাইনাল ম্যাচে ধোনির ব্যাট জমিয়ে কথা বলেছিল। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ওই ম্যাচে ধোনি ৯১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়ে ফেরেন। ম্যাচে তাকে ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরস্কারও দেয়া হয়।