চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ধর্ষণে বাধা দেয়ায় মা-মেয়ের চুল কেটে দিল

ভারতের বিহারে ধর্ষণে বাধা দেয়ায় মারধরসহ মা ও মেয়ের মাথার চুল কেটে দিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃস্পতিবার বিহারের ভাইসালি বিহারি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে হিন্দুস্থান টাইমস জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ খুরশীদ ধর্ষণের উদ্দেশে সহযোগীদের নিয়ে ৪৯ বছর বয়সী এক নারীর ঘরে জোরপূর্বক ঢোকে। তারা ওই নারীর ১৯ বছরের মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় ওই নারী বাধা দিলে খুরশীদ ও তার সহযোগীরা মা-মেয়েকে মারধর করে।

বিজ্ঞাপন

তারা মা-মেয়ের মাথুর চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়। শুধু তাই নয়, তারা মা-মেয়েকে এই অবস্থায় গ্রামে ঘুরে বেড়াতে বাধ্য করে। এ ঘটনার ভিভিও সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

বিজ্ঞাপন

পরে এ ঘটনায় জড়িতদের মধ্যে কাউন্সিলর খুরশীদ, একজন নাপিত ও আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় সাতজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পুলিশ কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার বলেন, ঘটনার তদন্ত চলছে। অন্য জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ভুক্তভোগী ওই মেয়ে পুলিশকে জানান, অভিযুক্তরা জোর করে ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় তার মা বাধা দিলে দুজনকেই লাঠি দিয়ে পেটায় তারা। তাদেরকে জোর করে ঘর থেকে বের করে দিয়ে পঞ্চায়েত বসায়। এসময় খুরশীদ নাপিত ডেকে তাদের চুল কেটে দিতে বলে। পরে তাদের গ্রামে ঘোরানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খুরশীদের অভিযোগ ভুক্তভোগী মা-মেয়ে মাংস চোরাকারবারীর সাথে জড়িত।