চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু কমিয়ে দিয়েছে করোনা

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ২০২০ সালে করোনা মহামারী মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু কমিয়ে দিয়েছে। যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সর্বাধিক গড় আয়ু হ্রাসের রেকর্ড।

সোমবার প্রকাশিত যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় উঠে এসেছে এ সংক্রান্ত নানা তথ্য।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

গবেষণায় বলা হয়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর আর কখনও প্রত্যাশিত আয়ু এতোটা কমেনি।

এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে পুরুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু কমে গেছে দুই বছরের অধিক।

বিবিসি বলছে, ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র, চিলিসহ যে ২৯টি দেশের তথ্য নিয়ে এ গবেষণা পরিচালিত হয়েছে তার মধ্যে ২৭টি দেশেই প্রত্যাশিত গড় আয়ু হ্রাস পেয়েছে। যার মধ্যে ২২টি দেশে ২০২০ সালে প্রত্যাশিত গড় আয়ু ২০১৯ সালের তুলনায় কমে গেছে ছয় মাসের বেশি।

বিজ্ঞাপন

এই গড় আয়ু কমে যাওয়ার কারণ মূলত করোনায় মৃত্যুর হিসাবের সঙ্গে সম্পর্কিত-বলছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।

বেশিরভাগ দেশে দেখা গেছে, নারীদের তুলনায় পুরুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু বেশি মাত্রায় কমেছে।  যুক্তরাষ্ট্রে পুরুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ২০১৯ সালের চেয়ে ২.২ বছর কমে গেছে।

গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অব এপিডেমিওলজিতে।

গবেষণার সহ লেখক ড. রিধি কাশ্যপ বলেন, এই গবেষণার ফলাফলে বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসের প্রভাবের চিত্র উঠে এসেছে।

করোনা মহামারীর কারণে এরই মধ্যে সারাবিশ্বে ৪৭ লাখ ৬৩ হাজার ৩৩৬ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছে ২৩ কোটি ২৬ লাখের অধিক মানুষ।

বিজ্ঞাপন