চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশে নির্বাচনের নামে তামাশা হচ্ছে: সাকি

গণসংহতি আন্দোলনের প্রদান সমন্বয়কারী জুনায়েদ সাকি বলেছেন, এটা একটা ফ্যাসিবাদী স্বৈরাচারী শাসন। এরমধ্যে গণতন্ত্রের নূন্যতম কিছু নাই। এইখানে যে নির্বাচনের নামে তামাশা হচ্ছে সেই তামাশার সাথে বিনোদন যোগাচ্ছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনার এই রকম একটা তামাশা পূর্ণ নির্বাচন করে, আবার বলছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাকি বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নেয়া দরকার!

বিজ্ঞাপন

আজ (মঙ্গলবার) সকালে মজলুম জননেতা মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে এসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

সাকি আরও বলেন, ‘‘এই নির্বাচন কমিশনের বিচার হবে। বিশেষ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের। যারা জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে মানুষের অধিকারের সাথে তামাশা করছেন, মানুষকে অপমান করেছেন সেই দিক থেকে আমরা মনে করি, বাংলাদেশের মানুষের নূন্যতম ভোটের অধিকার নেই। কেবল তাই নয় জীবনের নিরাপত্তা নাই।’’

‘‘সরকার শুধুমাত্র কিছু কিছু পক্ষকে খুশী করার চেষ্টা করছেন। রাষ্ট্রযন্ত্রের অংশীদারদের কাজে লাগিয়ে ভোট চুরি করেছেন গুন্ডাতন্ত্রকে ব্যবহার করে তারা ভোট চুরি করেছেন। জনগণের জীবন জাহান্নামে যাক এ নিয়ে তাদের কোনো চিন্তা ভাবনা নেই সেটা পরিষ্কার ভাবে প্রমাণিত হয়েছে। কাজেই জনগণের গণতান্ত্রিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে এই সরকারের পতন ঘটানো হবে।’’

তিনি বলেন, একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বর্তমান ফ্যাসিবাদী স্বৈরাচারী সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করে এ সরকারের পতন অন্যদিকে আমাদের রাষ্ট্র ব্যবস্থার গণতন্ত্রীকরণ। আমরা সরকারের পতন চাই মানুষের ভোটাধিকার চাই এবং একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত করতে চাই।

এসময় গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় ও টাঙ্গাইল জেলা শাখার বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।