চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশের প্রেক্ষাগৃহে নতুন ছবির আকাল, চলছে না ভারতীয় ছবি

সিনেমা হল সচল রাখতে নিত্য-নতুন ছবি চায় হল মালিকরা, অথচ ঈদুল ফিতরের পর বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে একমাত্র ছবি ‘আব্বাস’…

আমদানিতে টলিউড সুপারস্টার দেবের নতুন ছবি ‘কিডন্যাপ’ বাংলাদেশের ৫৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় গেল শুক্রবার (১২ জুলাই)। মুক্তির আগে ছবিটি নিয়ে দর্শকের কিছুটা আগ্রহ দেখা গেলেও শেষ পর্যন্ত ছবিটি গ্রহণ করেননি তারা। রাজধানী ও রাজধানীর বাইরের হলগুলোতেও দর্শক খরা তীব্র। 

আমদানি করা ছবি দর্শক না দেখলেও শুধুমাত্র হল সচল রাখতেই বাধ্য হয়ে ভারতীয় ছবি চালাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন দেশের অধিকাংশ হল মালিকরা।

বিজ্ঞাপন

রাজধানীর সবচেয়ে অভিজাত সিনে-থিয়েটার ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’-এ ‘কিডন্যাপ’-এর রীতিমত ভরাডুবি হয়েছে। সিনেপ্লেক্সের বিপণন বিভাগের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক মেজবাহ উদ্দিন চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, কিডন্যাপের অবস্থা খুব খারাপ। শুক্র-শনি-রবি এই তিনদিনে দর্শকের উপস্থিতি শতকরা ২২ ভাগ। তিনি বলেন, তিনদিনে মোট ১২ শো চলেছে। এ যাবৎকালে সবচেয়ে কম টিকেট বিক্রি হয়েছে ‘কিডন্যাপ’ ছবির।

ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সুভজিৎ সরকার পিয়াস রবিবার মর্নিং শোতে (১০.৪৫ মিনিট) বলাকায় দেখেছেন ‘কিডন্যাপ’। তার ভাষ্য, এ ছবির কনসেপ্ট খুব ভালো ছিল। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে বড় ধরণের ‘কিডন্যাপ’ যেভাবে হয় এটা নিয়ে গল্প। তিনি বলেন, দর্শক বেশি ছিল না। সবমিলিয়ে ৪০ জনের মতো দর্শক ছিল ওই শোতে। তবে ছবি তার কাছে ভালো লেগেছে।

রাজধানীর বলাকা সিনেমার ম্যানেজার সাজিদ আহমেদ বললেন, আশানুরূপ ব্যবসা হচ্ছে না। বলাকায় জিতের ছবি যেভাবে চলে সে তুলনায় দেবের এই ছবি দর্শক দেখছে না।

দর্শক না আসার অন্যতম কারণ হিসেবে সঠিক প্রচারণার অভাব এবং প্রতিকূল আবহাওয়াকে দায়ী করলেন বলাকা সিনেমার হলের এই কর্মকর্তা। তার ভাষ্য, প্রতি শো এভারেজ ২০-৪০ জন দর্শক নিয়ে চালাতে হচ্ছে। এরবেশি রেসপন্স নেই।

মিরপুরের পূরবী সিনেমা হলে ‘কিডন্যাপ’-এর ৪টি করে শো চললেও সেখানকার দায়িত্বে থাকা পরেশ দত্ত চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, খুব খারাপ অবস্থা এই ছবির। মানুষই একেবারেই দেখছে না। হল চালু রাখতে বাধ্য হয়েই ‘কিডন্যাপ’ চালাচ্ছি।

গাজীপুরের বর্ষা সিনেমা হলে চলছে ‘কিডন্যাপ’। হলটির দায়িত্বে থাকা বুকিং এজেন্ট তরিকুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার ভালো চলেছিল। এরপর থেকে দর্শক নেই হয়ে গেছে। কারণ, বৃষ্টি। তিনি জানান, এর আগে ‘ভোকাট্টা’ চালিয়েছিলেন। ওই ছবিও চলেনি। বলেন, কলকাতার যতবড় স্টারের ছবি হোক না কেন, এদেশের কেউ না থাকলে ওই ছবি দর্শক গ্রহণ করেনি।

কিন্তু যৌথ প্রযোজনার ছবিগুলো আবার বাম্পার ব্যবসা করেছিল বলে জানান বুকিং এজেন্ট তরিকুল ইসলাম।

সুরিন্দর ফিল্মস-এর ব্যানারে নির্মিত ছবি ‘কিডন্যাপ’ নির্মাণ করেছেন রাজা চন্দ। অভিনয় করেছেন দেব ও রুক্মিণী। সংগীত পরিচালনা করেছেন জিৎ গাঙ্গুলি। জানা যায়, পশ্চিমবঙ্গে ‘কিডন্যাপ’ মুক্তি পেয়েছিল গেল ঈদে। বাংলাদেশে ‘প্রেম চোর’ ছবির বিনিময়ে ‘কিডন্যাপ’ মুক্তি দিয়েছে শাপলা মিডিয়া।

কলকাতার ছবি বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে না চললেও কেন আমদানি করে আনা হয়?-এমন প্রশ্নে একাধিক আমদানিকারক জানিয়েছেন, সিনেমা হল সচল রাখতে নতুন ছবি দরকার। দেশের ছবি নেই তাই ভারত থেকে আমদানি করতে মুক্তি দিতে হচ্ছে।

Bellow Post-Green View