চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশের পরিবর্তনের অগ্রদূত সাধারণ জনমানুষ: পরিকল্পনামন্ত্রী

আইইউবিতে সোশ্যাল সায়েন্স আ্যন্ড হিউম্যানিটিজ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

দেশের পরিবর্তনের অগ্রদূত সাধারণ জনমানুষ উল্লেখ করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ভিশন ২০৪১ এর স্বপ্নপূরণে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি) আয়োজিত সোশ্যাল সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সোশ্যাল সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যানিটিজ বিভাগের আয়োজনে “বাংলাদেশ ইন ২০৪১, নোশনস অ্যান্ড ন্যারোটিভস অব ডাইভার্সিফিকেশন অ্যান্ড ট্রান্সফরমেশন” শীর্ষক এ সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইইউবি’র উপাচার্য তানভীর হাসান।

উদ্বোধন শেষে দেশিয় শিক্ষাবিদ ও গবেষকদের পাশাপাশি, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিশেষজ্ঞরাও  অনলাইনে যোগ দেন সম্মেলনে।

পরিকল্পনামন্ত্রী মান্নান বলেন, ‘‘দেশের পরিবর্তন হচ্ছে। এ পরিবর্তনে কাজ করছে সাধারণ মনুষ। যারা মাঠে-ঘাটে কাজ করে, বিদেশে কাজ করে এ পরিবর্তন আনছেন এই সব অগ্রদূতকে আমাদের সম্মান জানাতে হবে।দেশের অর্থনীতির যে জোয়ার এসেছে এটাকে ধরে রাখতে হবে। ২০৪১ এর স্বপ্ন পূরণে সবাইকে এক সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।’’

তিনি বলেন, আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধে হাজার হাজার সাধারণ মানুষ প্রাণ দিয়েছেন। সেই সব বীরদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা ধরে রাখতে হবে।

বিজ্ঞাপন

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় তরুণ প্রজন্মই সবচেয়ে বড় হাতিয়ার। ২০৪১ এ উন্নত সোনার বাংলা বিনির্মানে শিক্ষার্থীদের গবেষণার প্রতি অধিকতর গুরুত্ব দিতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তরুণ প্রজন্মকে বৈশ্বিক মানদণ্ডে গড়ে তুলে দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে। এই কাজে মূল ভূমিকা রাখতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে। বিভিন্ন গবেষণা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষকদের শিল্প বিপ্লবকে এগিয়ে নিতে হবে।

রোহিঙ্গা ও শরণার্থী প্রশ্ন, তরুণদের ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যাবহারে দায়িত্বশীলতা, জনস্বাস্থ্য, লোকপ্রশাসন ও অনানুষ্ঠানিক অর্থনীতি, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন, বৈদিশিক নীতি ও রাজনীতি, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবসহ ১৪টি বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয় এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর-এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি জোহানেসভান ক্ল, বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউিনিয়নের (ইইউ)-এর দূত চার্লস হোয়াইটলি, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান এবং আইইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান মতিন চৌধুরী।

সম্মেলনে বক্তারা বলেন, টেকসই উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা নিশ্চিত করতে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুযোগ কাজে লাগাতে হবে এবং তরুণ প্রজন্মকে গবেষণায় আকৃষ্ট করতে হবে। উন্নয়ন ও অগ্রগতির পথে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে কাজে লাগাতে হবে।

বিজ্ঞাপন