চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশের অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল শুরু

সোমবার থেকে দেশের অভ্যন্তরে বিমান চলাচল পুনরায় শুরু হয়েছে। তবে রাজধানী থেকে তিনটি অভ্যন্তরীণ রুটে প্রতিদিন ২৪টি ফ্লাইট ছেড়ে যাওয়া ফিরে আসার কথা থাকলেও যাত্রীর অভাবে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে বিমানের দুটি, ইউএস বাংলার একটি এবং ঢাকা থেকে সিলেটে বিমানের দুটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়।

শরীরের তাপমাত্রা বেশী পাওয়ায় বিমানবন্দর থেকে বেশ কয়েকজন যাত্রীকে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। বিশ্বব্যাপী মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস এর কারণে বিগত দুই মাসের বেশি সময় ধরে বিমান চলাচল বন্ধ ছিল।

বিজ্ঞাপন

প্রতিদিনের এই ২৪টি ফ্লাইটের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে ১১টি ফ্লাইট, ঢাকা- সৈয়দপুর-ঢাকা রুটে নয়টি এবং ঢাকা-সিলেট-ঢাকা রুটে চারটি ফ্লাইট পরিচালনা করার কথা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচলের ওপর স্থগিতাদেশ ১৫ জুন পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। তবে ১৫ জুনের পর যশোর ও রাজশাহীসহ অভ্যন্তরীণ সাতটি রুটের সবগুলো পুনরায় চালু করার বিষয়টি বিবেচনাধীন রয়েছে।

কাব-এর নির্দেশনা অনুযায়ী, সকল বিমান কোম্পানিগুলোকে প্রতিটি ফ্লাইটে একই পরিবারের না হলে দু’জন যাত্রীর মধ্যে অন্তত একটি আসন ফাঁকা নিশ্চিত করতে হবে। আর এজন্য অন্তত ৩০ শতাংশ আসন ফাঁকা রাখতে হবে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, প্রতিটি ফ্লাইটের প্রথম বা শেষের সারির আসনগুলো ফাঁকা রাখতে হবে, যাতে করে কোন যাত্রী করোনা-আক্রান্ত সন্দেহ হলে তাকে সেখানে রাখা যায়। ফ্লাইটের সকল স্টাফকে অবশ্যই মাস্ক, গ্লোভস ও ডিসপোজেবল হেড ক্যাপ পরতে হবে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কেবিন ক্রুদের এন৯৫ অথবা সমমানের সুরক্ষাবিশিষ্ট মাস্ক, গগলস, ডিসপোজেবল রাবার গ্লোভস পরতে হবে এবং প্রতি চার ঘন্টা পরপর মাস্ক পাল্টাতে হবে। ক্রুরা যাত্রীদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলবেন। তারা শুধু প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করবেন। যাত্রীরা সামাজিক দূরত্ব মেনে চেক-ইন কাউন্টারের সামনে লাইনে দাঁড়াবেন। বিমানে উঠানোর আগে তাদের দেহের তাপমাত্রা মাপা হবে।