চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশকে কীভাবে ভালোবাসতে হয় তা শিখিয়েছে বাংলাদেশ

মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছিলো কলকাতার গণমাধ্যম। স্টেটম্যান কাগজের সেদিনের তরুণ সাংবাদিক মানস ঘোষ কলমকে অস্ত্র করে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়িয়েছিলেন। একাত্তরের ২৮ মার্চ তিনিই প্রথম বিদেশী সাংবাদিক হিসেবে বাংলাদেশের ভেতরে এসে পাকিস্তানী বর্বরতার চিত্র দেখে স্তম্ভিত হয়ে যান।

১৯৭১ সালে কলকাতা থেকে প্রকাশ হতো আনন্দবাজার, যুগান্তর, স্টেটম্যান, হিন্দুস্তান স্ট্যান্ডার্ড, বসুমতি এবং অমৃতবাজার নামে ছয়টি খবরের কাগজ। তখনো সেখানে টেলিভিশন আসেনি, তবে ছিলো রেডিও আকাশবাণী কলকাতা।

বিজ্ঞাপন

সেসময়ের ইংরেজি কাগজ স্টেটম্যানের সাংবাদিক মানস ঘোষ বলছিলেন, সবগুলো গণমাধ্যমই বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত গড়ে তোলে। ২৫ মার্চের হত্যাযজ্ঞের খবর পেয়ে অফিসের অনুমতি ছাড়াই রক্তাক্ত বাংলাদেশের পথে পাড়ি জমিয়েছিলেন খবরের জন্য।

বিজ্ঞাপন

তরুণ বয়সে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে পায়ে পা মিলিয়ে দেখেছেন সম্মুখযুদ্ধ। খুলনার ফুলতলায় দেখেছেন ১৪, ১৫ ও ১৬ ডিসেম্বরের শেষ লড়াই। যুদ্ধের পর সাংবাদিক হিসেবে পাওয়া তথ্যে বুঝেছিলেন বাংলাদেশবিরোধী ষড়যন্ত্র চলছে বাংলাদেশের ভেতরেই।

পরে স্টেটম্যানের সম্পাদক হয়ে তিনি অবসরে যান। যুদ্ধ দিনের স্মৃতি বলতে গিয়ে ঝাপসা হয়ে আসা চোখে ৮২ বছর বয়সী তুখোড় সাংবাদিক মানস ঘোষ বলেন, দেশকে কীভাবে ভালোবাসতে হয় তা তাকে শিখিয়েছে বাংলাদেশ।

আরও দেখুন ভিডিও রিপোর্টে: