চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘দৃঢ় হোক বন্ধুত্ব সহযোগিতার বন্ধনে’ প্রতিপাদ্যে এসএসসি ব্যাচ ১৯৮৬ বাংলাদেশ’র বর্ষপূর্তি

‘দৃঢ় হোক বন্ধুত্ব সহযোগিতার বন্ধনে’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে প্রথম বর্ষপূর্তি উৎসব করেছে ‘এসএসসি ব্যাচ ১৯৮৬ বাংলাদেশ’। অনুষ্ঠানে বন্ধু আশ্রম ও হাসপাতাল করাসহ বিভিন্ন কল্যাণমূলক কাজ বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেছে এসএসসি ব্যাচ ১৯৮৬ বাংলাদেশ।

শনিবার প্রথম বর্ষপূর্তিতে রাজধানীর উপকণ্ঠে প্রিয়াংকা শুটিং কমপ্লেক্সে সারা দিনের উৎসবে এ অঙ্গীকার করেন সংগঠনের সদস্যরা।

বিজ্ঞাপন

উৎসবের উদ্বোধন পর্বে বক্তৃতা করেন উৎসব চেয়ারম্যান ইলিয়াস আলী মোল্লা এমপি, আহ্বায়ক ও গ্রুপের স্বপ্নদ্রষ্টা আশরাফুল হক, সদস্য সচিব নজরুল কবীর এবং অন্যরা। সঞ্চালনা করেন মো. শহীদুল্লাহ সিদ্দিকী।

তারা জানান, ১৯৮৬ সালে সারা দেশ থেকে এসএসসি পাস করা ৯ হাজারের বেশি বন্ধু এই প্ল্যাটফর্মে যুক্ত। সংগঠনের ৫০ জনের বেশি চিকিৎসককে নিয়ে একটি হাসপাতাল তৈরি করা হবে। হাসপাতাল সব মানুষের চিকিৎসার জন্য উন্মুক্ত রাখা হবে। আশরাফুল হক বলেন, বয়স্ক ও নিঃসঙ্গ মানুষের জন্য বন্ধু আশ্রম তৈরিসহ বিভিন্ন উদ্যোগ রাজধানীসহ সারা দেশে বাস্তবায়ন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

পরবর্তীতে রাজধানীর বাইরেও হাসপাতাল এবং বন্ধু আশ্রম তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ঢাকায় একটি ডরমেটরিও করার পরিকল্পনা রয়েছে সংগঠনের। চিকিৎসক, প্রকৌশলী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বন্ধুরা মিলে নিজেদের অর্থ দিয়ে এসব উদ্যোগ বাস্তবায়ন করবেন।

সংগঠনের প্রথম বর্ষপূর্তি উৎসবে বন্ধুদের সঙ্গে আনন্দে মাতেন দেশের উচ্চ পর্যায়ে থাকা বিশিষ্টজন এবং শিল্প-সাহিত্য ও ক্রীড়া অঙ্গনের তারকারাও।

পরিচিতি ও পুনর্মিলনী, উদ্বোধন পর্ব, মানবিকতায় ৮৬ ও ডক্টর্স হেল্পলাইনসহ বিভিন্ন স্টল, এডমিন প্যানেলের সংবর্ধনা, যুগলবন্দি সংবর্ধনা, ’৮৬ ফাউন্ডেশন ও বন্ধু সংসদ বিষয়ে সাংগঠনিক অধিবেশন, ঢাকা ঘোষণা পাঠ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও র‌্যাফেল ড্র।

তিন যুগ আগে সারা বাংলাদেশ থেকে এসএসসি পাস করা বন্ধুরা এরই মধ্যে নানা কর্মকাণ্ড করছেন। সামাজসেবা, চিকিৎসা সেবা, সাংস্কৃতিক কর্মসূচি, দিসব উদযাপনসহ কাজগুলোর মধ্য দিয়ে ‘এসএসসি ব্যাচ ১৯৮৬ বাংলাদেশ’ মানুষের মন জয় করেছে।