চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক ডিজি আজাদ

অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে পদত্যাগ করা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে দুদকের তলবের পরিপ্রেক্ষিতে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কমিশনের কার্যালয়ে হাজির হন ডা. আবুল কালাম আজাদ। পরে দুদক পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে অনুসন্ধান টিম স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক এই ডিজিকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত ৬ আগস্ট দুটি চিঠিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদকে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে দুই দফায় হাজির হতে বলা হয়। একটি চিঠি পাঠান দুদক পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলী এবং অপরটি পাঠান দুদক পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যা।

বিজ্ঞাপন

দুদক পরিচালক শিবলীর চিঠিতে বলা হয়, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও সিএমএসডির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে কভিড-১৯-এর চিকিৎসার ক্ষেত্রে নিম্নমানের মাস্ক, পিপিই ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম কেনাসহ বিভিন্ন হাসপাতালে সরবরাহের নামে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগটির সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে সাবেক ওই ডিজির বক্তব্য শোনা জরুরি।

শেখ ফানাফিল্যার চিঠিতে বলা হয়, রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ও অন্যদের বিরুদ্ধে জনসাধারণের সঙ্গে প্রতারণা করে করোনা সনদ দেওয়ার নামে কোটি কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এ সম্পর্কে সাবেক ডিজিসহ পাঁচজনের বক্তব্য গ্রহণ করা হবে।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালককে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন দুদক পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যা। তার পাঠানো চিঠিতে একই দিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক ডা. আমিনুল হাসান, উপপরিচালক ইউনুস আলী, ডা. শফিউর রহমান ও গবেষণা কর্মকর্তা ডা. দিদারুল ইসলামকেও তলব করা হয়েছে।