চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দুই সিটিতেই নৌকার জয়

রাজধানী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে বিপুল জয় পেয়েছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই মেয়রপ্রাথী। উত্তরে বিজয়ী হয়েছেন আতিকুল ইসলাম এবং দক্ষিণে শেখ ফজলে নূর তাপস।

শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে বেসরকারিভাবে তাদেরকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন সিটি নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা দুই রিটার্নিং কর্মকর্তা।

ঢাকা উত্তরে সবগুলো কেন্দ্রে (১৩১৮) নৌকা মার্কায় আতিকুল ইসলাম পেয়েছেন ৩ লাখ ৭০ হাজার ৬১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত তাবিথ আউয়াল ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ২ লাখ ১২ হাজার ৫৭৭ ভোট।

আর দক্ষিণে ১১৫০টি ভোটকেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৪ লাখ ২৪ হাজার ৫৯৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকে ইশরাক হোসেন পেয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ৫১২ ভোট।

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ করে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছে বিরোধীদল বিএনপি। প্রতিবাদে রোববার রাজধানীতে হরতালের ডাক দিয়েছে দলটি।

শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।

এবার দুই সিটিতে ভোটকেন্দ্র ছিল ২ হাজার ৪৬৮টি। তবে ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারের উপস্থিতি তুলনামূলক কম দেখা গেছে।

ভোটগ্রহণের পরপরই কিছু কেন্দ্রে ভোটারদের প্রবেশে বাধা এবং পোলিং এজেন্টদেরকে বের করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিএনপি। তবে আওয়ামী লীগের দাবি, বিএনপির পোলিং এজেন্টরা নিজেরাই কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে গিয়ে নাটক করছে।

বিজ্ঞাপন

ভোট সুষ্ঠু হয়েছে বলে মন্তব্য করেন ঢাকা উত্তরের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। রিটার্নিং অফিসারের কাছে ঢাকা উত্তরের ৪৩টি কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ করেন উত্তরের বিএনপি প্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

কয়েকটি ভোটকেন্দ্র থেকে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার খবর পাওয়া গেছে এবারের সিটি নির্বাচনে। এছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩৪ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার সাদেক খান রোডে নির্বাচনের দায়িত্ব পালনকালে মোস্তাফিজুর রহমান সুমন নামে এক সাংবাদিককে কুপিয়ে আহত করে দুর্বৃত্তরা।

নির্বাচনে দুই সিটি করপোরেশনে ভোটার ছিলেন ৫৪ লাখ ৬৩ হাজার ৪৬৭ জন। এর মধ্যে ঢাকা উত্তরে ভোটার ৩০ লাখ ১০ হাজার ২৭৩। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৫৬৭ এবং নারী ভোটার ১৪ লাখ ৬০ হাজার ৭০৬ জন।

আর ঢাকা দক্ষিণে ভোটার ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১২ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪১ এবং নারী ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৫৩ জন।

দলীয় প্রতীকে হওয়া এই নির্বাচনে ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে ছয়জন, ৫৪টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫১ জন এবং ১৮টি সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭৭ জন প্রার্থী লড়ছেন।

ঢাকা দক্ষিণে লড়ছেন মেয়র পদে সাতজন, ৭৫ টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩২৬ জন এবং ২৫টি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৮২ জন প্রার্থী। তবে এরইমধ্যে এই সিটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দুইজন সাধারণ কাউন্সিলর এবং দুইজন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

এই নির্বাচনে দুই সিটিতে মেয়র পদে লড়ছেন মোট ১৩ প্রার্থী। ঢাকা দক্ষিণে ৭ জন আর উত্তরে ৬ জন।

দক্ষিণের ৭ মেয়র প্রার্থীরা হলেন: আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস, বিএনপির ইশরাক হোসেন, জাতীয় পার্টির হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুর রহমান, এনপিপির বাহারানে সুলতান বাহার, গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের আকতারুজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লাহ।

আর উত্তরের ৬ মেয়র প্রার্থীরা হলেন: আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম, বিএনপির তাবিথ আউয়াল, সিপিবির সাজেদুল হক, পিডিপির শাহীন খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ফজলে বারী মাসউদ এবং এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান।

বিজ্ঞাপন