চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অস্ট্রেলিয়ার জন্য সীমান্ত খুলতে সম্মত নিউজিল্যান্ড

ব্যবসায়িক স্বার্থে দুই সপ্তাহের মধ্যে সীমান্ত খুলে দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সাথে কোয়ারেন্টাইন মুক্ত ভ্রমণে সম্মত হতে যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন। 

রয়টার্সে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায়, প্রতিবেশী দেশের সাথে ব্যবসায়িক চাপ সামাল দিতে সীমান্ত খোলার বিষয়ে নিউজিল্যান্ডে এমন ঘোষণা দিতে পারেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।  

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাস থেকে নিউজিল্যান্ডের নাগরিকদের সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে তাদের সীমান্তে লকডাউন দেয় দেশটির সরকার। তারপর থেকে প্রায় বছরখানেক বন্ধ রয়েছে সীমান্ত।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন: অস্ট্রেলিয়ার সাথে কোয়ারেন্টাইন মুক্ত ভ্রমণের বিষয়ে ট্রান্স-তাসমান ভ্রমণ নীতিতে নীতিগতভাবে একমত হয়েছে তার মন্ত্রিসভা। আগামী ৬ এপ্রিল সীমান্ত খুলার বিষয়ে ঘোষণা আসতে যাচ্ছে, সেখানে প্রতিবেশী দেশ অস্ট্রেলিয়া সবার প্রথম প্রাধান্য পাবে।

বিজ্ঞাপন

‘আমরা জানি যে অনেক নিউজিল্যান্ড কোভিডের সংক্রমণ বৃদ্ধির সময় এমন সিদ্ধান্তে ভীতি বোধ করতে পারেন, তবে আমরা সাবধানতা অবলম্বন করেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিতে চাচ্ছি।

নিউজিল্যান্ড কঠোর লকডাউন প্রয়োগ করে এবং সীমান্তগুলো বছরের বেশিরভাগ সময় বন্ধ রেখে করোনাভাইরাসকে কঠিনভাবে নির্মূল করেছে।’

জাসিন্ডা আরডার্ন আরও বলেছেন: নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করতে আরও কিছু প্রয়োজনীয় কাজ করতে হবে। তবে নিউজিল্যান্ড খুব সতর্কতা নিয়ে ভ্রমণ চুক্তিটি চূড়ান্ত করবে।

অস্ট্রেলিয়াও মহামারীর প্রথমদিকে তাদের আন্তর্জাতিক সীমানা বন্ধ করে দিয়েছিল। নিউজিল্যান্ডের নাগরিকদের বাদে কেবল অস্ট্রেলিয়ানদের ফিরে আসার সুযোগ দেয়।