চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দুই মাস পর ঘরে ফিরলেন রাজ, স্বস্তিতে শিল্পা!

পর্নো ভিডিও তৈরীর সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ জুলাইয়ের ১৯ তারিখ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন ব্যবসায়ী ও বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্র। প্রায় দুই মাস পর অবশেষে জামিনে মুক্ত হয়ে ঘরে ফিরলেন তিনি।

সোমবার মুম্বাইয়ের এক ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন মঞ্জুর করে ৪৬ বছর বয়সী এই বিজনেসম্যানের। জামিন মঞ্জুর হওয়ার পর দিন মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে আর্থার রোড জেল থেকে মুক্তি পান রাজ কুন্দ্র। রাজের জামিনে মুক্তির জেরে স্বভাবতই স্বস্তিতে শিল্পা ও তার গোটা পরিবার।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পর্নো ছবি তৈরি ও তা প্রচারের অভিযোগে গত সপ্তাহেই মুম্বাই পুলিশের অপরাধ দমন শাখা একটি ১৫০০ পাতার সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করে। তারপরেই রাজের আইনজীবি প্রশান্ত পাতিল আবারও তার মক্কেলের জামিনের আবেদন করেন। হটশট অ্যাপের ভিডিও শুটে রাজ প্রত্যক্ষভাবে জড়িত এমন কোনও প্রমাণ নাকি ওই চার্জশিটে নেই। এফআইআরে তার নাম না থাকা সত্ত্বেও তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানানো হয়। রাজের আইনজীবীর দাবি ছিল ফাঁসানো হয়েছে রাজকে।

তদন্তকারীদের দাবি হটশট অ্যাপ মূলত তৈরি করা হয়েছিল পর্নো ছবি তৈরি ও তা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য। কোর্টের সামনে পেশ করা নথিতে বলা হয়েছে রাজ ১০০টির ওপর নীল ছবি তৈরি করেছেন এবং তা দেখার জন্য সাবসক্রাইবারদের থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়েছেন। যদিও রাজের দাবি কোনও মিটিং বা শুটে তিনি ছিলেন তার প্রমাণ পুলিশের কাছে নেই। এমনকি বিষয়টি উল্লেখ আছে চার্জশিটেও। রাজের আরও দাবি এই অপরাধে ৭ বছরের কারাদণ্ড হয়। এর আগেও এক অভিযুক্তকে জামিন দেওয়া হয়েছে। সুতরাং তাকেও জামিন দেওয়া উচিত আদালতের। দুই পক্ষের প্রশ্ন-উত্তরের পর রাজের জামিন মঞ্জুর হয়।

স্বামী জেল থেকে মুক্তির পরই অভিনেত্রী স্ত্রীর প্রথম প্রতিক্রিয়া কী? রাজের জামিন মঞ্জুরের খবর সামনে আসার মিনিট কয়েকের মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট করলেন শিল্পা শেঠি। রামধনুর এক অপূর্ব ছবির ওপর লেখা রয়েছে, ‘রামধনু এসে প্রমান করে, বড় কোনও ঝড়ের পর একটা সুন্দর সময় আসে’। রজার লি-এর লেখা এই উদ্ধৃতি। এটা কি শিল্পা-রাজের জীবনে ঝড়ের ইতি? নাকি পর্নোকাণ্ড নতুন মোড় নেবে, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

বিজ্ঞাপন