চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘দুই বছরে শাকিবের প্রযোজনায় ২০টি ছবি হবে, ৫টি আমি বানাবো’

‘আগামি দুই বছরে শাকিব খানের প্রোডাকশন ‘এসকে ফিল্মস’ থেকে কমপক্ষে ২০ টি নির্মাণ হবে, এরমধ্যে ৫ টি আমি বানাবো। সে আমাকে কথা দিয়েছে। আমার ছবি ফ্লপ যায়নি বলে সে আমাকে কথা দিয়েছে। আর শাকিব কথা দিলে কথা রাখে। ‘পাসওয়ার্ড’ ফ্লপ গেলে শাকিব খানের ফোন পেতাম না। হিট ছবি দিয়েছি বলেই শাকিব খানের ফোন পেয়েছি।’

কথাগুলো বলছিলেন মালেক আফসারী। যিনি একাধিক ব্যবসা সফল ছবি নির্মাতা। জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খানের এসকে ফিল্মসের প্রযোজনায় ‘পাসওয়ার্ড’ নির্মাণ করে সাফল্য পেয়েছেন মালেক আফসারী। ছবিটি ছিল গত বছরের একমাত্র ব্যবসা সফল প্রজেক্ট।

বিজ্ঞাপন

বছর খানেক বিরতি দিয়ে আবারও শাকিব খানের প্রযোজনায় নতুন ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন আফসারী।

তিনি বললেন, আবারও শাকিবকে নিয়ে হিট ছবি দেব। ইন্ডাস্ট্রি চাঙ্গা করবো। সিনেমা হল বাঁচাবো। সিনেমা হলের সামনে আবার টিকেট  ব্ল্যাকে বিক্রি হবে। ওইটা আমার সবচেয়ে প্রিয় দৃশ্য। ‘পাসওয়ার্ড’ মুক্তির পর ব্ল্যাকে টিকেট বিক্রি হয়েছিল। আবার এমন ধামাকা বানাবো। সকলের দোয়া পেলে আমি পারবো। আমার সবকিছুতে মিশে আছে সিনেমা। আমি মনে করি, আমার রক্তে কোনো গ্রুপ নেই, আছে শুধু সিনেমা। আমি যৌবনে যেমন সিনেমার জন্য পাগল ছিলাম আজও তেমন।

নতুন এ ছবিটি প্রসঙ্গে মালেক আফসারী বলেন, মৌলিক ছবি আমি বানাই না। মৌলিক ছবি বানিয়ে প্রযোজককে ডুবাতে চাই না। যেসব প্রযোজক মৌলিক ছবি বানায় তারা হয়তো এতোদিন বিদেশ চলে গেছে। ভাবলেই খারাপ লাগে।

ফেসবুকে একটি ভিডিওতে উদাহরণ টেনে মালেক আফসারী বলেন, প্রযোজক টাকা লগ্নি করে বিজনেসের জন্য। ধরেন ১০ টাকা লগ্নি করলো। ২০ টাকা না হোক ১২ টাকা তো হতে হবে। কমপক্ষে ২ টাকা তো লাভ হতে হবে। মৌলিক ছবি বানিয়ে লাভ হয়না। যোগ করে তিনি বলেন, সালমান খানের ম্যাক্সিমাম ধামাকা ছবিই কোনো না কোনো ছবির অনুকরণে।

শাকিব খানকে নিয়ে নতুন ছবি প্রসঙ্গে মালেক আফসারী বলেন, আমিও রিস্ক নিতে চাই না। শাকিব আমাকে গল্প রেডি করতে বলেছে। আমি গল্পের কাজ ইতোমধ্যে শুরু করেছি। হয়তো আগামি মাসেই শুটিংয়ে যেতে পারি। ‘হ্যাকার’ এবং ‘পাসওয়ার্ড’ নামে আরও কাজ শাকিবের সঙ্গে হবে। তবে সেটা করোনা পরিস্থিতি ভালো হলে। কারণ এ দুটো ছবির বেশিরভাগ কাজ করতে হবে দেশের বাইরে।