চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দুঃসময় পার করে ফেরার অপেক্ষায় ইমরুল

সন্তানের অসুস্থতার কারণে প্রায় দেড় মাস ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে হয়েছে ইমরুল কায়েসকে। খেলতে পারেননি আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ। এক বছরের শিশুপুত্র শোয়াইবকে নিয়ে দুইদফা যেতে হয়েছিল সিঙ্গাপুর। কতটা কঠিন সময় পার করেছেন বুধবার শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের সেটি জানালেন এ ওপেনার।

‘প্রথমবার সিঙ্গাপুর থেকে আসার পর ভালো হয়ে গেলেও আবার সমস্যা শুরু হলে ফের যেতে হয়েছে। এবার চিকিৎসকরা বলেছে আশা করি আর হবে না। মেডিসিন দিয়েছে। প্রথমে ডেঙ্গু হয়েছিল, ডেঙ্গু থেকে আরও দুইটা রোগ হয়। যার একটির নাম রোজেলা। আমাদের উপমহাদেশে মালয়েশিয়ার দিকে এই রোগ বেশি থাকে। এজন্য বাংলাদেশের চিকিৎসকরা বুঝতে পারছিলেন না আসলে কী রোগ।’

বিজ্ঞাপন

দুঃসময়ের কথা বলার মুহূর্তে ইমরুলের চোখেমুখে ফুটে উঠছিল দীর্ঘ ক্লান্তির ছাপ। দুশ্চিন্তায় ওজন কমে গেছে ৫ কেজি!

বিজ্ঞাপন

ছেলে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ইমরুলও ফিরেছেন মাঠে। নিজেকে প্রমাণের সুযোগ পাচ্ছেন ১০ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে।

নভেম্বরে টেস্ট ও টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলতে ভারত সফরে যাবে বাংলাদেশ। টেস্ট দলে থাকার আশা করতেই পারেন ইমরুল। কেননা আফগান সিরিজে বিবেচনায় ছিলেন এ বাঁহাতি ওপেনার। ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন দল ঘোষণার আগেই। নিজেকে সরিয়ে ইমরুল ব্যস্ত হয়ে পড়েন সন্তান আর পরিবার নিয়ে।

দুঃসময় পার করে আসা ইমরুলের ভাবনায় এখন শুধুই ক্রিকেট। জাতীয় দলে ফেরার আশা নিয়ে অপেক্ষায় সুযোগ এলে যেন কাজে লাগানো যায়।

‘আশা তো সবাই করে। আশা নিয়েই সবাই সামনে আগায়। আমিও সেই আশা নিয়েই অপেক্ষায় আছি। যদি সামনে সুযোগ আসে সেই সুযোগ কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। আমার একটা সুযোগ আসছিল (আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে) ওই সময়ে দুর্ভাগ্যবশত আমার ছেলের অসুস্থতার কারণে খেলতে পারলাম না। ওইটা তো আর শেষ হয়ে যায় নাই। সামনে যদি সুযোগ আসে অবশ্যই চেষ্টা করব শতভাগ দেয়ার।’