চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দারাজ এক্সপ্রেসের তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

প্রস্তুতি চলছে বিগেস্ট ওয়ান-ডে সেল ১১.১১ ক্যাম্পেইনের

দেশের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস ও আলিবাবা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান দারাজ বাংলাদেশ  চলতি মাসে তাদের লজিস্টিক প্ল্যাটফর্ম দারাজ এক্সপ্রেস’র (ডেক্স) তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করছে।

সারাদেশে দ্রুত ডেলিভারি প্রদান ও সর্বোচ্চ ক্রেতা সন্তুষ্টি নিশ্চিতের লক্ষ্যে ২০১৮ সালে দারাজ এক্সপ্রেস চালু করা হয়।

বর্তমানে প্রতিদিন প্রায় তিন লাখ প্যাকেজ ডেলিভারি দিয়ে অনন্য নজির সৃষ্টি করেছে ডেক্স। দারাজ প্ল্যাটফর্মের দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি অর্ডার ডেক্সের মাধ্যমে ডেলিভারি দেয়া হয় এবং এতে প্রায় ৫ হাজার ডেক্স হিরো ( ডেলিভারি কর্মী) কাজ করছেন।

বিজ্ঞাপন

দারাজের এই সেবায় প্রায় ৪৫০টি ভ্যান ও ১৮’শরও বেশি দুই চাকার বাহন আছে। চলতি বছর দারাজ দেশের ৬৪ জেলাতেই পৌঁছে গিয়েছে ফলে, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ক্রেতারাও এখন দ্রুত সময়ে পণ্য হাতে পাওয়ার সুবিধা উপভোগ করতে পারছেন।

দারাজের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও বিয়ার্কে মিকেলসেন জানান, ক্রেতা ও বিক্রেতাদের আরও নিরবিচ্ছিন্ন সেবা প্রদান এবং সকল অঞ্চলে ব্যবসা উন্মুক্ত করার লক্ষ্যে ডেক্স চালু করা হয়েছে।

দারাজের বিগেস্ট ওয়ান-ডে সেল ১১.১১ ক্যাম্পেইনকে সামনে রেখে সারাদেশে দ্রুত ডেলিভারি নিশ্চিতের লক্ষ্যে, ডেক্স আরও ১৫০০ ডেক্স হিরো (ডেলিভারি কর্মী) নিয়োগ করেছে।

এ বিষয়ে দারাজ বাংলাদেশ লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার খন্দকার তাসফিন আলম বলেন, “চালুর পর থেকেই ডেক্স সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখে চলেছে। এটি প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সারাদেশে ক্রেতাদের সাথে বিক্রেতাদের সংযোগের নতুন পথ তৈরি করেছে। আমরা এখন ১১.১১ ক্যাম্পেইনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি এবং আশা করছি, ক্যাম্পেইন চলাকালীন এবং তার পরেও আমরা ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ের জন্যই তাৎক্ষণিক ও নিরবিচ্ছিন্ন সেবা প্রদান করতে পারবো।”

বিজ্ঞাপন