চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দামি হোটেলে গৃহবন্দি থাকছেন রোনালদিনহো

একমাস জেলে থাকার পর ছাড়া পেলেন ব্রাজিলের সাবেক ফুটবলার রোনালদিনহো। তবে একেবারেই মুক্তি মিলছে না। জাল পাসপোর্ট ও ভুয়া কাগজপত্র নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশের দায়ে দেশটিতে তদন্ত চলছে তাকে ঘিরে। সময়টাতে একটি দামি হোটেলে ভাইসহ গৃহবন্দি থাকতে হবে তাকে।

মঙ্গলবার আদালতের নির্দেশের চারঘণ্টা পর হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয় রোনালদিনহোকে। করোনাভাইরাস আতঙ্কে এসময় পর্যাপ্ত ব্যবস্থাও নিতে দেখা গেছে তাকে।

বিজ্ঞাপন

বন্দি থাকলেও হোটেলে থাকা খাওয়ার খরচ বহন করতে হবে রোনালদিনহো ও তার ভাই রবের্তোকেই। প্রত্যেককে আদেশ দেয়া হয়েছে ৮ লাখ করে হোটেলের বিল পরিশোধ করতে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

গত ৬ মার্চ ভুয়া পাসপোর্ট নিয়ে প্যারাগুয়েতে প্রবেশের দায়ে আটক হন ২০০২ বিশ্বকাপজয়ী ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ও তার ভাই। যদিও রোনালদিনহোর দাবি, প্যারাগুয়েতে প্রবেশের সময় জোর করেই তাদের হাতে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে এসব কাগজপত্র। যার আমন্ত্রণে প্যারাগুয়েতে এসেছিলেন সেই ব্রাজিলিয়ান ব্যবসায়ী উইলমোন্ডেশ সোসা লিরিয়াও এখন জেলে।

গত সেপ্টেম্বরে ব্রাজিলিয়ান পাসপোর্ট আটক করা হয় রোনালদিনহো ও তার ভাইয়ের। বর্তমান মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে পাঁচ বছরের জেল হতে পারে দুজনের। একই মামলায় আরও ১৪জনের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত জনসম্মুখে কোনো বিবৃতি দিতে পারবেন না তারা।

নিজের জীবনীর প্রচার ও দাতব্য কাজে প্যারাগুয়ে এসেছিলেন রোনালদিনহো। জেলের একমাস ভয়ংকর ১৫০জন আসামির সঙ্গে ছিলেন সাবেক বার্সা তারকা। এসময় আসামিদের সঙ্গে ফুটবল খেলেছেন, উদযাপন করেছেন নিজের জন্মদিনও।