চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দর্শক দেখলেই কষ্ট সার্থক

আরো বিস্তৃত আয়োজনে ‘স্বর্ণমানব ৪’, ২৬ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৫টায় দেখানো হবে চ্যানেল আইয়ে

বিমান বন্দরকে ঘিরে স্বর্ণচোরাকারবারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ২০১৮ সালে সাড়া ফেলে দিয়েছিলো চ্যানেল আইয়ে প্রচারিত নাটক ‘স্বর্ণমানব’। জনপ্রিয়তার সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে গত দুই বছর নির্মিত হয়েছে স্বর্ণমানব ২ ও স্বর্ণমানব ৩।

এবার ২৬ জানুয়ারি (আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস উপলক্ষে) চ্যানেল আইয়ে প্রচার হবে বিশেষ নাটক ‘স্বর্ণমানব ৪’। আগের নাটকটির মতো এটির রচনা, চিত্রনাট্য ও সার্বিক নির্দেশনায় আছেন কাস্টমস ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশনের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান। আগের তিনটির মতোই এই নাটকটিও পরিচালনা করেছেন আবু হায়াত মাহমুদ।

বিজ্ঞাপন

এবারের নাটকের গল্প নিয়ে নির্মাতা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘স্বর্ণমানব ৪’ এর গল্প সাজানো হয়েছে টেকনাফের এক জেলে দম্পতিকে নিয়ে। কীভাবে একজন দরিদ্র জেলে অভাবের তাড়নায় ইয়াবা পাচারের সঙ্গে যুক্ত হয়, ঝুঁকি নিয়ে কক্সবাজার থেকে ৪০০ ইয়াবা গিলে পাকস্থলীর ভেতর নিয়ে ঢাকায় পৌঁছে দেয় গডফাদারের কাছে- এসবই ফুটে উঠেছে গল্পে।

নির্মাতা বলেন, ‘স্বর্ণমানব’ এর আগের তিনটি সিক্যুয়েলের চেয়ে এবারের নাটকটি একটু বিস্তৃত পরিসরে নির্মাণ। প্রায় ৫দিন আমরা শুট করেছি। বড় আয়োজনে শুটিং অ্যারেঞ্জমেন্ট ছিলো এবার, কিছুটা কষ্টও হয়েছে।

নির্মাতা জানিয়েছেন, টেকনাফের নাফ নদী, সমুদ্র সৈকত, জেলেপাড়া, কক্সবাজার, ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর, আকাশে এয়ারক্রাফটের ভেতর, এয়ারপোর্ট কাস্টমস জোন, লা মেরিডিয়ান হোটেল ও উত্তরার ক্লিনিকে নাটকটির শুটিং সম্পন্ন হয়।

এর আগে নাটকটির ৩টি সিক্যুয়াল নির্মিত হয়, যার দু’পর্বে অভিনয় করেছিলেন মোশাররফ করিম। এবারের সিক্যুয়েলেও তিনি থাকছেন মূল চরিত্রে। এছাড়াও অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন আজিজুল হাকিম, সালাউদ্দিন লাভলু, জাকিয়া বারী মম, রুনা খান, আরফান আহমেদ, মনিরা মিঠু ও রাশেদ মামুন অপু প্রমুখ।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৫টা ৩০ মিনিটে চ্যানেল আইয়ে দেখানো হবে নাটকটি। এছাড়াও এদিন আরটিভিতে বিকেল ৩টা ১৫ মিনিটে, এনটিভিতে রাত ১১টা ৩০ মিনিটে দেখানো হবে ‘স্বর্ণমানব ৪’ এবং এই নাটকটি বাংলাভিশনে দেখানো হবে ২৭ জানুয়ারি বিকাল ৫টায়, একইদিনে নাটকটি দেখানো হবে বৈশাখি টেলিভিশনেও।