চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দর্শকের মতে ঈদের সেরা নাটকগুলোর একটি ‘পুনর্জন্ম’

নির্মাতা ভিকি জাহেদের নাটকগুলো নিয়ে অপেক্ষায় থাকেন দর্শক। বিশেষ দিবসগুলোতে এ নির্মাতার কাজ মানেই দর্শকদের বাড়তি আগ্রহ। অবশ্য প্রতিবারই তিনি গল্প ও নির্মাণ মুন্সিয়ানায় চমকে দেন দর্শকদের। হয়তো এজন্যই ভিকির নির্মাণে বরাবরই মুগ্ধ দর্শক।

ঈদুল আযহায় কয়েক’শ নাটক প্রচার হয়েছে। শত শত এসব নাটকের ভিড়ে আলোচনায় এসেছে ভিকি জাহেদের পরিচালনায় চ্যানেল আইয়ে প্রচারিত নাটক ‘পুনর্জন্ম’। যেখানে অভিনয় করেছেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় জুটি আফরান নিশো ও মেহজাবীন। নাটকের বাড়তি মাত্রা যোগ করেছেন নওশাবা ও শাহেদ আলী।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

প্রচারের পর এটিকে ঈদের সেরা নাটকগুলোর একটি বলে মনে করছেন দর্শকরা। তারা বলছেন, ঈদের সেরা নাটকগুলোর একটি ‘পুনর্জন্ম’। চ্যানেল আইয়ের ইউটিউব চ্যানেলে এ নাটকটি উন্মুক্ত করা হয়েছে।

‘পুনর্জন্ম’র একটি দৃশ্যে নিশো ও নওশাবা

শত শত দর্শক মন্তব্য ছিল, এক ঘণ্টার এ নাটকটি অনেকটা থ্রিলার ও সাসপেন্সে ঠাঁসা। দর্শক ভাবতেই পারেননি শেষটা অন্যরকম হবে। নির্মাতা ও শিল্পীদের স্বার্থকতা এখানেই- যা দর্শকদের মতামত।

ইউটিউবে মাত্র একদিনে প্রায় দুই হাজারের মতো মন্তব্য চোখে পড়েছে। যা ঘেঁটে দেখা যায় কোনো মন্তব্যে নেতিবাচকতা নেই। গ্ল্যামারহীন সাদামাটা চরিত্র উপস্থাপন করে অভিনেত্রী হিসেবে আলাদা প্রশংসা পাচ্ছেন মেহজাবীন। অন্যদিকে নিশোর ঠাণ্ডা মাথার অভিনয় ও শেষ চমকটা দেখে নড়েচড়ে উঠেছেন দর্শক।

বিজ্ঞাপন

একই বিষয় লক্ষ্য করা গেল সোশাল মিডিয়াতে। ‘পুর্নজন্ম’ দেখে মুগ্ধতা ও শেষটা দেখে চমকে যাওয়ার কথা জানাচ্ছেন অনেকেই। নিজেদের ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করে লিখছেন, তৃপ্তির কথা। পাশাপাশি ভূয়সী প্রশংসা তো থাকছেই।

থ্রিলারধর্মী কাজ উপহার দিয়ে দর্শকদের আস্থা অর্জনকারী নির্মাতা জিকি জাহেদকে অনেকেই নির্মাতাদের ‘মিস্টার টুইস্ট’ আখ্যা দিচ্ছেন। তিনি জানালেন, ১৯৪০-৭০ দশকের বিখ্যাত থ্রিলার নির্মাতা আলফ্রেড হিচককের কাজগুলো দারুণভাবে উপভোগ করেন। এজন্য থ্রিলার কাজে ভিকির আগ্রহটা বেশি।

‘পুনর্জন্ম’র একটি দৃশ্যে মেহজাবীন ও শাহেদ আলী

চ্যানেল আই অনলাইনকে ভিকি জাহেদ বলেন, এর আগে চ্যানেল আইয়ে জন্মদাগ, ভুলজন্ম নামে দুটি নাটক বানিয়েছিলাম। এবার এলো পুর্নজন্ম। জন্ম নামে মিল থাকলেও গল্পে একটির সাথে অন্যটির কোনো মিল ছিল না। প্রতিটি কাজ দর্শক গ্রহণ করেছেন। সবার কাছে মন থেকে কৃতজ্ঞতা।

তিনি বলেন, পুর্নজন্ম নাটকের মাধ্যমে সঠিকভাবে ডার্ক থ্রিলার গল্প বলতে চেয়েছি। যেন টান টান উত্তেজনা থাকে। কাজটি টুইস্টে ভরপুর ছিল। দর্শক প্রেডিকশন করতে পারেনি শেষে কী হতে যাচ্ছে। খুব ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। এই রেসপন্স আমাকে পরবর্তী কাজ আরও ভালো করতে উৎসাহিত করছে।

রোমান্টিক কমেডি ফরম্যাটের গল্পের বাইরে ‘পুনর্জন্ম’র এমন ব্যতিক্রমী নাটক উপহার দেয়ার জন্য নির্মাতা, শিল্পীদের পাশাপাশি চ্যানেল আই কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দর্শক।