চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দর্শকদের মাস্ক পরার অনুরোধ গার্দিওলার

কোভিড-১৯ ইস্যুতে রোববারও মাঠে গড়ায়নি একাধিক ম্যাচ। হচ্ছে না অ্যাস্টন ভিলা-লিডসের খেলা। কয়েক সপ্তাহে স্থগিত ম্যাচের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪টিতে। ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন খেলোয়াড়-কোচসহ অনেকে। এমন অবস্থায় দর্শকদের স্টেডিয়ামে মাস্ক পরে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন পেপ গার্দিওলা।

ম্যানচেস্টার সিটি বস করোনার এমন ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের সময়েও মানুষের মাস্ক পরতে অনীহা দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। করোনা দমিয়ে রাখতে সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরার অনুরোধ করেছেন সেজন্য। বলেছেন, ফুটবলের ভবিষ্যৎ হুমকির কথাও।

Reneta June

‘দর্শকসহ এবং দর্শক ছাড়া মাঠে খেলার অনুভূতি চিন্তাও করতে পারবেন না।’ গার্দিওলা বলেছেন, ‘ফুটবলে অর্থনীতি এবং সম্প্রচারকারীদের জন্য আমাদের দর্শকহীন মাঠেই খেলতে হচ্ছে। আপনাদের জন্য আমরা খেলা চালিয়ে যাচ্ছি এবং নিয়মিত বেতনও পাচ্ছি, এজন্য ধন্যবাদ।’

বিজ্ঞাপন

‘আশা করি দ্বিতীয়বার এমন ঘটবে না। কিন্তু করোনা সংক্রমণ বিশ্বব্যাপী বেড়ে চলছে। সংক্রমিত লোকেরা স্টেডিয়ামে আসতে পারে, করোনা ছড়াতে পারে।’

গার্দিওলা বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, ‘কিছু লোক আছে যারা মাস্ক না পরেই মাঠে ঢুকছে, তাদের এমন কাণ্ড আমাকে অবাক করে। লোকজন ভ্যাক্সিন নিচ্ছে, বুস্টার ডোজ পাচ্ছে, কিন্তু সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরছে না। নিজেকে, পরিবারকে এবং সমাজকে রক্ষা করতে মাস্ক পরা গুরুত্বপূর্ণ।’

মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা জানিয়ে সিটি বস বলেছেন, ‘আমি বিজ্ঞানী কিংবা ডাক্তার নই, আমি তাদের উপর আস্থা রাখছি। তারা আমার থেকে বেশি জানে। সামাজিক দূরত্ব ও স্যানিটাইজারের মতো মাস্ক পরাও গুরুত্বপূর্ণ। আসুন আমরা সবাই মাস্ক পরি। নাহলে বাজে সময় আসতেই থাকবে।’