চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দক্ষিণী অভিনেতা হলেও দাপটে বলিউডের সমান

ভারতীয় সিনেমা বলতেই সবাই ধরে নেন বলিউডের কথা। কিন্তু গত কয়েক বছরে এই ধারণা পাল্টে দিয়েছে দক্ষিণ ভারত। বিশেষ করে তামিল, তেলেগু, মালায়ালাম এবং কন্নড় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। বলিউডের সাথে পাল্লা দিয়ে তারা সিনেমা নির্মাণ করে যাচ্ছে ইন্ডাস্ট্রিগুলো। যা তাদের আঞ্চলিক গণ্ডি পেরিয়ে সারা ভারত সহ বিশ্বের মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কখনো কখনো বলিউডের চেয়ে বেশি দাপট দেখাচ্ছে দক্ষিণ ভারতের ছবিগুলো। আর এসব সম্ভব হচ্ছে প্রভাস, ধানুশ, দুলকার সালমান, আল্লু অর্জুন, মহেশ বাবু থেকে শুরু করে কন্নড় অভিনেতা যশের পায়ে ভর করে। খোদ বলিউডও এখন এসব অভিনেতাকে তাদের ছবিতে পেতে মরিয়া।

যশ
২০১৮ সালে প্রথমবারের মত কন্নড় ছবি ‘কেজিএফ-১’ এ অভিনয় করে দক্ষিণের গণ্ডি পেরিয়ে সর্বভারতীয় অভিনেতায় পরিনত হন যশ। যে ছবিটি তাকে বিশ্বব্যাপী পরিচয় এনে দেয়া ছাড়াও বক্স অফিসে ব্যাপক সাড়া ফেলে। এক ছবি দিয়েই বলিউডকেও তার দিকে দৃষ্টি ফেরাতে বাধ্য করেন। আগামিতে বলিউডের ছবিতে তাকে দেখা গেলেও বিস্ময়ের কিছু থাকবে না। তবে বর্তমানে ‘কেজিএফ-চ্যাপ্টার দুই’ এর কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

প্রভাস
ভারতীয় সিনেমায় নিজেকে ঠিকভাবে তুলে ধরতে দক্ষিণী সুপারস্টার প্রভাসের জন্য আশীর্বাদ ‘বাহুবলী’ ছবিটি। এই ছবি দিয়েই মূলত বলিউডের বক্স অফিসেও বেশ বড়সর ধাক্কা দিয়েছিলেন তিনি। আর এরপরই গেল বছর বলিউড ছবি ‘সাহো’-তে তার এন্ট্রি! শোনা যাচ্ছে, সামনে একাধিক বলিউড ছবিতে দেখা যেতে পারে এই অভিনেতাকে।

বিজ্ঞাপন

আল্লু অর্জুন
দক্ষিণের স্টাইলিশ তারকাদের মধ্যে অন্যতম এক নাম আল্লু অর্জুন। জনপ্রিয় এই অভিনেতা স্টাইলের পাশাপাশি নাচে ও অভিনয়েও দক্ষ।  সুকুমারের পরিচালনায় ‘আরিয়া’ ও ‘আরিয়া টু’ সিনেমায় এই অভিনেতার অভিনয় দর্শকদের মন জয় করেছিলেন। এই অভিনেতার দিকেও চোখ আছে বলিউডের।

ধানুশ
সুপারস্টার ইমেজের না হলেও অভিনেতা হিসেবে পুরো ভারতেই বেশ জনপ্রিয় ধানুশ। আর সেই জনপ্রিয়তায় ভর করেই তাকে নেয়া হয়েছিলো বলিউড ছবি ‘রানঝানা’য়। যেখানে নাছোড়বান্দা এক প্রেমিকের চরিত্রে অভিনয় করেন। ধানুশের বিপরীতে ছবিটিতে অভিনয় করেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী সোনম কাপুর। দুজনের জুটি দর্শকদের কাছে প্রশংসিত হয়েছিল। এছাড়াও অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে ‘শামিতাভ’ ছবিতেও অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করেছিলেন এই দক্ষিণী তারকা।

দুলকার সালমান
২০১২ সালে ‘সেকেন্ড শো’ ছবিটির মাধ্যমে অভিনয়ে অভিষেক হয়েছিল মালায়ালাম সুপারস্টার দুলকার সালমানের। এরপর চার্লি, কালির মতো বেশকিছু আলোচিত ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। পুরো ভারতে ছড়িয়ে যায় তার জনপ্রিয়তা। সোনম কাপুরের বিপরীতে ‘জোয়া ফ্যাক্টর’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষিক্ত হন তিনি। ছবিটি প্রশংসার পাশাপাশি বক্স অফিসেও বেশ ভাল সাড়া ফেলে।

মহেশ বাবু:
দক্ষিণ ভারতের আরেক সুপারস্টার মহেশ বাবু। অ্যাকশনধর্মী ছবির জন্য আগে থেকেই সাড়া ভারতবর্ষে বেশ জনপ্রিয় তিনি। কিন্তু তার অভিনীত সাম্প্রতিক ছবি ‘সারিলেরু নেকাব্বারু’র জন্য বেশ সাড়া পান। ছবিটি বক্স অফিসে ১০০ কোটির মাইলফলকও স্পর্শ করে। এই অভিনেতার দিকে চোখ আছে বলিউডের। -কইমই.কম