চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

থালা-বাটি হাতে পাটকল শ্রমিকদের ‘ভুখা মিছিল’

মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, বকেয়া মজুরি পরিশোধসহ ১১ দফা দাবিতে খুলনা, রাজশাহী ও নরসিংদীতে ৬ দিনের কর্মসূচি শুরু করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকল সিবিএ ননসিবিএ সংগ্রাম পরিষদ। সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে এ কর্মসূচি শুরু করেন তারা। কর্মসূচির অংশ হিসেবে ভুখা মিছিল ও বিক্ষোভ করছেন তারা।

রাজশাহী
রাজশাহীতে মহাসড়ক অবরোধ করে ১১ দফা দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে রাজশাহী জুট মিলে শ্রমিক-কর্মচারীরা।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে রাজশাহী জুট মিলের ভেতর থেকে শ্রমিক-কর্মচারিরা মিছিল নিয়ে নগরীর কাটাখালী এলাকায় মিল গেটের সামনে রাজশাহী-নাটোর মহাসড়ক অবরোধ করে। এসময় মহাসড়কের দুই পাশে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়।

রাজশাহী পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি জিল্লুর রহমান বলেন: শ্রমিকরা জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, সরকারি-বেসরকারি অংশীদারীর (পিপিপি) সিদ্ধান্ত বাতিল, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারিদের পি.এফ. গ্রাচ্যুইটির টাকাসহ ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এ বিক্ষোভ করা হচ্ছে।

কাটাখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিল্লুর রহমান বলেন: পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। শ্রমিকরা মিছিল করে মিল গেটে সভা করে।

বিজ্ঞাপন

খুলনা
মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, বকেয়া মজুরি পরিশোধসহ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকল সিবিএ ননবিএ সংগ্রাম পরিষদের ডাকে ১১ দফা দাবিতে ৬ দিনের কর্মসূচি পালন করছে খুলনার পাটকল শ্রমিকরা।

প্রথম দিনে অনাহারি শ্রমিকদের ভুখা মিছিলে ভারি হয়ে ওঠে খুলনা শিল্পাঞ্চলের আকাশ বাতাস। সকাল সাড়ে ৯টায় খুলনার ৯টি পাটকলের মিলগেটে জড়ো হয় শ্রমিকরা। সেখানে গেট সভা শেষে শুরু করে ভুখা মিছিল।

খালিশপুর বিআইডিসি সড়ক প্রদক্ষিণ করে নতুন রাস্তা হয়ে স্ব-স্ব মিল গেটে শেষ হয় এ মিছিল। অবিলন্বে তারা ১১ দফা দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

নরসিংদী
মজুরি কমিশনসহ ৯ দফা দাবিতে ভুখা মিছিল করেছে নরসিংদীর ইউএমসি জুট মিল শ্রমিকরা। সকালে হাতে থালা-বাটি ও ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে ইউএমসি জুটমিলের প্রধান ফটক থেকে বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় মিল গেইটে গিয়ে শেষ হয় মিছিলটি। বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ আয়োজিত এই কর্মসূচিতে হাজারো শ্রমিক অংশ নেয়।

এসময় দীর্ঘদিনেও বকেয়া মজুরি, পিএফ’র টাকা প্রদান ও বদলি শ্রমিকদের স্থায়ীকরণ, মজুরি কমিশনসহ তাদের ৯ দফা ন্যায্য দাবি না মানায় সরকারের তীব্র সমালোচনা করে পাটমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেন শ্রমিকরা। অচিরেই দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন শ্রমিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।