চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তেলেগু সিনেমার নায়িকা বাংলাদেশের মেঘলা

ভারতের তেলেগু সিনেমার নায়িকা হয়েছেন বাংলাদেশের মডেল ও অভিনেত্রী মেঘলা মুক্তা। ছবির নাম ‘সাকালাকালা ভাল্লাভুডু’। পরিচালনা করেছেন শিবা গণেশ এবং প্রযোজনা করেছে ইউভেন টুরিস্ট টকিং অ্যান্ড সিমভা।

চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি থেকে এই ছবির শুটিং করেন তিনি। গোটা ভারত বর্ষের চারটি প্রদেশের বিভিন্ন লোকেশনে এই ছবির শুটিং সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেঘলা।

পুরো ছবির শুটিং শেষ করে গেল মঙ্গলবার রাতে ঢাকার ফিরেছেন মেঘলা। দক্ষিণের এই সিনেমায় নায়িকা হয়ে কাজ করে ভীষণ খুশি তিনি। চ্যানেল আই অনালাইনকে মেঘলা এই খবরটি যখন বলছিলেন তখন আঁচ করা যাচ্ছিল তার উচ্ছ্বাস।

গেল বৃহস্পতিবার দুপুরে মেঘলা বলেন: গত ডিসেম্বরে আমি হায়দ্রাবাদে এই ছবির জন্য অডিশন দিয়েছিলাম। তখন এতোটা সিরিয়াস ছিলাম না। থার্টি ফার্স্টের আগে আমাকে জানানো হয় প্রাথমিকভাবে সিলেক্ট হয়েছি, তখন আমি মালয়েশিয়াতে ছিলাম। তারপর আবার আমাকে জানায়, আমি চূড়ান্ত হয়েছি। ৫ জানুয়ারি থেকে ছবির শুটিং। সে জন্য ৪ জানুয়ারি হায়দ্রাবাদ যাই। এরপর শুটিং শুরু করি।’

গেল তিনমাস ধরে হায়দ্রাবাদ ছিলেন মেঘলা। পুরো ছবির শুটিং, গান, ডাবিং সবকিছু শেষ করে এসেছেন তিনি। এই ছবিতে মেঘলার নায়ক তানিশক রেড্ডি। এছাড়া মেঘলার বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুমান তালওয়ার, যিনি দক্ষিণি সিনেমার পরিচিত মুখ।

মেঘলা জানান, গানসহ শুটিং শেষ হতে তিনমাস লেগেছে। পুরোটা সময় তিনি দারুণভাবে এনজয় করেছেন। পুরো ছবিটাই অ্যাকশন, রোমান্টিক ও কমেডি গল্পে নির্মাণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সবকিছু ঠিক থাকলেও তেলেগু ভাষার ছবিতে অভিনয় করতে গিয়ে মেঘলাকে তেলেগু ভাষা আগে রপ্ত করতে হয়েছে। তার কাছে মনে হয়েছে, তিনি যেন বোর্ড পরীক্ষা (এসএসসি) দিয়েছেন। কারণ, পুরো ছবির চিত্রনাট্য লেখা ছিল তেলেগু ভাষায়। মেঘলা সেগুলো বাংলায় অনুবাদ করেন। এরপর সেটা বোঝার চেষ্টা করেছেন।

তিনি বলেন, ‘ভাষা নিয়ে সেখানে ওয়ার্কশপ করেছি। রাত জেগে তেলেগু ভাষা শিখতে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। আর শট দেয়ার আগে আমাকে অনুশীলন করানো হয়েছে। এর জন্য পরিচালক ও নায়ক দুজনেই আমাকে সাহায্য করেছেন।

তেলেগু সিনেমায় কাজ করে আমি খুবই সন্তুষ্ট। কারণ, কাজ করতে গিয়ে অনেক কমফোর্ট পেয়েছি। তারা অনেক বেশি সহযোগিতা পরায়ণ, কোনো অ্যারোগেন্সি পাইনি তাদের থেকে। তারা নতুনদের ওয়েলকাম করতে জানে। আমি বাংলাদেশ থেকে সেখানে গিয়েছি এটা সবাই জেনে আমাকে ভীষণ সাহায্য করেছেন। বিশেষ করে তেলেগু ভাষা শিখতে সবাই খুব আন্তরিক ছিলেন। ওদের শুটিং, ডান্স প্যার্টান্ট সবকিছুই ব্যতিক্রম লেগেছে।

এই ছবির শুটিং হয়েছে অন্ধ্র প্রদেশের ভাইজ্যাক এলাকার পার্বতীপুরম ও নার্সিঙ্গাপুরন দুই গ্রামে। এছাড়া হায়দ্রাবাদের বিভিন্ন স্টুডিও, রাজমন্দ্রিতেও শুটিং হয়েছে। শুধু তাই নয়, তামিলনাড়ু, কেরেলা ও রামুজি ফিল্ম সিটিতে একদিন শুটিং হয়েছে। বর্তমানে ছবিটির সম্পাদনার কাজ চলছে।

মেঘলা বলেন, দেড়মাস পড় আবার হায়দ্রাবাদ যাব ছবির অডিও অ্যালবাম প্রকাশ অনুষ্ঠানে। সবকিছু ঠিক থাকলে জুনেই এই ছবিটি মুক্তি পাবে।

মেঘলা বাংলাদেশের পরিচিত মডেল। কাজ করেছেন দেশের নামী সব ফ্যাশন হাউজের সঙ্গে। এছাড়াও মিউজিক ভিডিওতে দেখা গেছে তাকে। শুধু তাই নয়, ২০১৪ সালে ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’ ও সর্বশেষ শাকিব খানের ‘নবাব’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। অল্পদিনের ক্যারিয়ারে দক্ষিণের নায়িকা হয়েছেন মেঘলা। তিনি আশা করছেন সবকিছু ছাপিয়ে ছবিটি সাফল্য পাবে।

সবশেষে মেঘলা বললেন, গত বছর একটা রিউমার ছড়িয়েছিল আমি মিডিয়া ছেড়ে দিচ্ছি। তারপরেই এই ছবিতে কাজের সুযোগ আসে। আমি তখনই খবরটি জানালে সবাই মনে করতো এটি সত্য নয়। সেজন্য শুটিংয়ের যাবতীয় কাজ করেই চ্যানেল আই অনলাইনের মাধ্যমে সবাইকে জানালাম। আগামীতে আরো ভালো কাজ করতে চাই। আশা করছি সবার সহযোগিতা পাবো।

বিজ্ঞাপন