চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তেরো সন্তানকে শেকল বেঁধে রাখায় গ্রেপ্তার বাবা-মা

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার একটি বাড়িতে ১৩ সন্তানকে নির্যাতন ও শেকল বেঁধে রাখার দায়ে তাদের বাবা-মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশের দেয়া তথ্য অনুসারে বিবিসি জানিয়েছে, ডেভিড অ্যালেন টারপিন (৫৭) ও লুইস অ্যানা টারপিনের (৪৯) বাসা থেকে উদ্ধার করা ১৩ জনের মধ্যে দুই বছর থেকে ২৯ বছর বয়সী ছেলেমেয়েও ছিল। তাদের কয়েকজন ছিল শেকল আর তালা দিয়ে বিছানার সঙ্গে বাঁধা।

রিভারসাইড শেরিফ’স ডিপার্টমেন্ট এক বিবৃতিতে জানায়, লস অ্যাঞ্জেলেসের দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত পেরিস শহরের একটি বাসায় আটকে রাখা ছেলেমেয়েদের মধ্যে সতেরো বছর বয়সী একটি মেয়ে স্থানীয় সময় রোববার সকালে পালিয়ে বের হতে সফল হয়। মেয়েটি খাবারের অভাবে অপুষ্টিতে ভুগছিল এবং খুবই ক্ষীণকায় অবস্থায় ছিল বলে জানায় পুলিশ।

বের হওয়ার পর মেয়েটি বাসার ভেতরেই খুঁজে পাওয়া একটি সেলফোন থেকে পুলিশের জরুরি সহায়তা নম্বরে কল করে দাবি করে, তার বাবা-মা বাড়ির ভেতর তার আরও ১২ ভাইবোনকে বন্দী করে রেখেছেন।

বিজ্ঞাপন

খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার করার জন্য ওই বাড়িতে ছুটে যায় পুলিশ। তাদের উদ্ধারের পর পুলিশ জানায়, সেখানে আটকে থাকা ১৩ জনই অপুষ্টিতে ভুগছে। তাদের অনেককেই তখন শেকল আর তালা দিয়ে বেঁধে নোংরা অন্ধকার ঘরে বন্দী অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের শরীরও খুব নোংরা অবস্থায় ছিল।

১৩ জনকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বন্দীদের মধ্যে সাতজনের বয়স ১৮ থেকে ২৯ বছরের মধ্যে। তাই এ ঘটনায় আরও হতবাক হয়েছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ। নিজের সন্তানদের এ অবস্থায় কেন ঘরে আটকে রাখা হয়েছে, ডেভিড ও লুইস এমন প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে না পারলে তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ডেভিড ও লুইসের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও শিশুদের জীবন বিপদগ্রস্ত করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন